• সোমবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৯

  • || ২৮ সফর ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ বিরোধী অপপ্রচারের সমুচিত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী ওয়াশিংটন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী ‘জাতিসংঘ অধিবেশনে সক্রিয় অংশগ্রহণ বাংলাদেশের অবস্থান আরও সুদৃঢ় করেছে’ জাতিসংঘে আজ বাংলায় ভাষণ দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু আজ বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস জলবায়ু ইস্যুতে ধনী দেশগুলোর অবদান ‘দুঃখজনক’: প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ সব সময় জনগণের ভোটেই ক্ষমতায় আসে: প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ বিশ্বশান্তি ও মানবমুক্তির দিকদর্শন: আ.লীগ জাতিসংঘে ১৫ আগস্টের কথা স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সহযোগিতা জোরদারে ঢাকা-নমপেন এফটিএ চুক্তিতে সম্মত দেশে বিনিয়োগ বাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল বাইডেনের অভ্যর্থনায় প্রধানমন্ত্রীর যোগদান রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে জাতিসংঘকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করুন: প্রধানমন্ত্রী বাইডেনকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন : জাতিসংঘের বলিষ্ঠ ভূমিকা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী চলমান বৈশ্বিক সংকট নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উদ্বেগ জাতিসংঘে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর আলোকচিত্র প্রদর্শন সাফজয়ী ফুটবলার রূপনা চাকমার জন্য রাঙ্গামাটিতে ঘর নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর নিষেধাজ্ঞা-পাল্টা নিষেধাজ্ঞা বিশ্বজুড়ে গভীরভাবে আঘাত করছে: প্রধানমন্ত্রী

শুধু উপদেশ নয়, আমলও করতে হবে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২  

অল্প উপদেশ কিংবা আমল যে কারো নাজাতের জন্য যথেষ্ট। যদি তা যথাযথ হয়। কথার সঙ্গে কাজের মিল হয়। আল্লাহ তাআলা কোরআনুল কারিমে এ রকম অসংখ্য উপমা তুলে ধরেছেন। সবই মুসলিম উম্মাহর মুক্তি ও কল্যাণের জন্য। উম্মতে মুহাম্মাদির কল্যাণ ও মুক্তির জন্য। ইহুদি-নাসারারা যে কাজটি করতো মুসলিম উম্মাহর সে কাজটি করা যাবে না। শুধু উপদেশ দেওয়া নয় বরং আমলও করতে হবে। এমনটিই এসেছে কোরআনের দিকনির্দেশনায়।

আল্লাহ তাআলা কোরআনুল কারিমে এমন সব ঘটনাও তুলে ধরেছেন, যা আগের আসমানি কিতাবগুলোতে ছিল। আবার সেসব কিতাবের অনুসারীরা কোন বিষয়গুলো নিজেদের ইচ্ছা মতো ব্যবহার করছে তাও বলেছেন।

ইহুদিদের প্রতি নির্দেশ ছিল- তোমরা ঈমান বা বিশ্বাস স্থাপন করো আল্লাহ তাআলার উপর, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উপর; নামাজ কায়েম কর, জাকাত আদায় কর এবং মুসলমানদের সঙ্গে নামাজের জামাতে শামিল হও। এগুলো ছিল পূর্ববর্তী আয়াতের নির্দেশ। ইহুদিরা যখন এ নির্দেশকে অমান্য করে তখন তাদের লক্ষ্য করে আমলের বিষয়টি তুলে ধরলেন। আর এটি উম্মতে মুসলিমার জন্যও খুব জরুরি। আল্লাহ তাআলা বলেন-

اَتَاۡمُرُوۡنَ النَّاسَ بِالۡبِرِّ وَ تَنۡسَوۡنَ اَنۡفُسَکُمۡ وَ اَنۡتُمۡ تَتۡلُوۡنَ الۡکِتٰبَ ؕ اَفَلَا تَعۡقِلُوۡنَ

‘তোমরা কি মানুষকে ভাল কাজের আদেশ দিচ্ছ আর নিজদেরকে ভুলে যাচ্ছ? অথচ তোমরা কিতাব তেলাওয়াত কর। তোমরা কি বুঝ না?’ (সুরা বাকারা : আয়াত ৪৪)

সুতরাং শুধু সৎ কাজের আদেশ দিয়ে বসে থাকলেই চলবে না বরং নিজেদেরও আমল করতে হবে। তবেই মিলবে মুক্তি। এ আয়াতেও বলা হয়েছে, তোমরা মানুষদের সৎ কাজের আদেশ দিয়ে থাক। অথচ আল্লাহ তাআলা তোমাদের কিতাব তাওরাতে শেষ নবি ও তাঁর প্রতি প্রেরিত গ্রন্থ কোরআনের উপর ঈমান আনার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন, সে নির্দেশ তোমরা পালন করছ না। এবং যে সত্য প্রকাশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন তা মানুষের মাঝে প্রকাশ করছ না। তাই এ আয়াতে আল্লাহ তাদেরকে প্রশ্ন করে বলেন, এ স্ববিরোধী নীতি যে কত বড় অন্যায়, তা কি তোমরা উপলব্দি করো না?

তাফসিরে এসেছে, মদিনায় কোনো কোনো ইহুদি তাদের সম্প্রদায়ের লোকদের গোপনে ইসলাম কবুল করতে উদ্বুদ্ধ করতো, ইসলামের সত্যতা স্বীকার করে  মানুষকে ইসলাম গ্রহণের জন্য অনুপ্রাণিত করতো, কিন্তু তাদের কেউ কেউ উপদেশ দিলেও নিজেরা ইসলাম কবুল করতো না। এ আয়াতের সম্বোধন তাদেরকেও করা হয়েছে।

ঠিক এভাবে প্রতিটি কাজের ক্ষেত্রেই শুধু উপদেশ নয়, বরং উপদেশের পাশাপাশি আমলও করতে হবে। তবেই এ আয়াতের হক বাস্তবায়ন হবে। দুনিয়ার সফলতার পাশাপাশি পরকালের মুক্তি মিলবে সহবে। তাই যার মানুষকে সৎ কাজের নির্দেশ দেবে, তারা নিজেরাও সৎ কাজের অন্তর্ভূক্ত হবে। যারা এ কর্তব্য যথাযথভাবে পালন করে না তাদের জন্যই এ আয়াত সতর্কবাণী।

আল্লাহ তআলা সবাইকে কথা ও কাজে মিল রেখে আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।