• সোমবার ২৪ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১০ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ

মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে সম্মানজনক স্কোর বাংলাদেশের

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২৪  

টস হেরে ব্যাট করতে নামার পর যেভাবে একের পর এক উইকেট হারানো শুরু করেছিলো বাংলাদেশের ব্যাটাররা, তাতে শঙ্কাই তৈরি হয়েছিলো- স্কোর তিন অংকের ঘর পার হবে তো।

শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের লজ্জা বাঁচলো সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ব্যাটে। তার ৪৪ বলে ৫৪ রানের ইনিংসটি সম্মান বাঁচিয়েছে বাংলাদেশের। ৬ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়েকে ১৫৮ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দিয়েছে নাজমুল হোসেন শান্তর দল।

মিডল অর্ডারে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫৪ রান করেন। ৬টি বাউন্ডারি এবং ১টি ছক্কার মার মারেন তিনি। অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট আজ একটু চোখ মেলে তাকিয়েছে যেন। ২৮ বলে ৩৬ রান করেন তিনি।

যে ওপেনিং জুটি নিয়ে খুব বেশি দুশ্চিন্তা বাংলাদেশ দলের, সেই ওপেনিং জুটি আগের ম্যাচে বেশ ভালো খেলেছিলো। ১০১ রানের জুটি গড়েছিলো তারা। কিন্তু পরের ব্যাটাররা দাঁড়াতেই পারেনি। আর আজ, সিরিজের শেষ ম্যাচে ওপেনিং জুটিকে ৯ রানে বসিয়ে পরপর সাজঘরে ফেরত পাঠায় জিম্বাবুয়ে বোলাররা।

তানজিদ হাসান তামিম আউট হন ২ রান করে, সৌম্য সরকার আউট হন ৭ রান করে। এরপর এই সিরিজে এতদিন যার ব্যাটের দিকে তাকিয়ে থাকতো বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকরা, সেই তাওহিদ হৃদয় আউট হয়ে গেলেন মাত্র ১ রান করে।

১৫ রানে ৩ উইকেট পড়ার পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। দু’জনে গড়েন ৬৯ রানের জুটি। ৩৬ রান করে আউট হন শান্ত। এরপর সাকিব আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ জুটি বাধেন। দু’জনের ব্যাটে গড়ে ওঠে ৩৯ রানের জুটি। ১৭ বলে ২১ রান করে আউট হন সাকিব।

শেষ দিকে জাকের আলী অনিক ঝড় তোলেন। ১১ বলে ২ ছক্কা এবং ১ বাউন্ডারি মেরে তিনি ২৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। ৪ বলে ৬ রান করে অপরাজিত থাকেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রান করে বাংলাদেশ।