• শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ কেউ হতাশ হবেন না: প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নের জন্য কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী বিএনপি ক্ষমতায় এসে সব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয় চমক রেখে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করল বাংলাদেশ শেখ হাসিনার তিন গুরুত্বপূর্ণ সফর: প্রস্তুতি নিচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হজযাত্রীদের ভিসা অনুমোদনের সময় বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

লিটনের সমস্যাটা মানসিক, এখান থেকে বের হতে হবে: সুজন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৮ এপ্রিল ২০২৪  

জাতীয় দলের হয়ে কোন ফরম্যাটেই সুবিধা করতে পারছেন না। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি এবং টেস্ট- তিন ফরম্যাট মিলিয়ে লিটন দাসের সাম্প্রতিক ফর্ম মোটেই ভাল যাচ্ছে না। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ ওয়ানডে ছাড়া ২ টেস্টের ৪ ইনিংস, ২ ওয়ানডে এবং ৩ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের একটিতেও কোন ফিফটি নেই। সর্বোচ্চ ৩৬। এর মধ্যে তিনবার আউট হয়েছেন শূন্য রানে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিলেটে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে লিটনের রান ছিল যথাক্রমে ০, ৩৬, ৭। এরপর ২ ওয়ানডেতেই আউট হয়েছেন কোন রান না করে। তৃতীয় ওয়ানডেতে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ে আবাহনীর হয়ে প্রিমিয়ার লিগে খেলতে নেমেও চরম ব্যর্থ। শাইনপুকুরের বিপক্ষে বিকেএসপিতে এক ম্যাচ খেলে আউট হয়ে যান মাত্র ৫ রানে।

এরপর সিলেট টেস্টে দুই ইনিংসে ২৫ আর ০ এবং সর্বশেষ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের ব্যাটিং স্বর্গে করেছেন ৪ এবং ৩৮ রান। অর্থ্যাৎ জাতীয় দলের হয়ে শেষ ৯ ইনিংসে সাকুল্যে লিটনের রান ১১০। এর চেয়ে আর খারাপ আর কি হতে পারে?

এদিকে নিজের ব্যাটের এ করুণ অবস্থা সম্ভবত লিটন নিজেও ঠিকভাবে মানতে পারছেন না। তাই আবাহনীর হয়ে প্রিমিয়ার লিগ থেকেও কিছু দিনের জন্য বিশ্রাম চেয়ে নিয়েছেন লিটন দাস।

লিটনের এ অবস্থা কেন? কী কারণে তার ফর্ম এত খারাপ? দেশের অন্যতম ব্যাটিং প্রতিভার হঠাৎ কেন এই অবনমন? তার সমস্যা কোথায়- টেকনিক, টেম্পরামেন্টে নাকি মানসিক?

এসব প্রশ্নের খুব ভাল ব্যাখ্যা যিনি দিতে পারেন, সেই আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের কাছে এ প্রশ্ন রাখা হলে তিনি বোঝানোর চেষ্টা করেন, লিটন দাসের সমস্যাটা খানিক ব্যক্তিগত এবং তার নিজের মনের। তাইতো সুজনের মুখে এমন কথা, ‘লিটন ছোটবেলা থেকে যে রকম ছিল, একটু সিনিয়র প্লেয়ার হয়ে গেছে, একটু রিজার্ভ হয়ে গেছে। এগুলো থেকে বের হতে হবে আসলে। আমার মনে হয় যে তার এগুলো নিয়ে কাজ করা প্রয়োজন।’

লিটন অনেক বেশি অন্তর্মুখি। নিজেকে গুটিয়ে রাখেন। অনেকের সাথেই কথা-বার্তা কম বলেন। সেটা কি কোন সমস্যা নাকি? খালেদ মাহমুদ সুজন জবাব দিতে গিয়ে বোঝান, লিটন সবার সাথে মেলা মেশা করেন কম। এমনকি ক্রিকেটকেও সময় দেন কম।

সুজন বলেন, ‘আচরণগত কথাটা আমি বলতে চাই না। আমি বলতে চাই সবার সাথে একটু মেলামেশা, ক্রিকেটকে আরেকটু সময় দেওয়া- এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি জানি, সবারই পেশাদার ও ব্যক্তিগত জীবন রয়েছে। লিটনেরও আছে। লিটন আগে বিবাহিত ছিল না, এখন বিবাহিত, পরিবার আছে। সবই আছে। কিন্তু ক্রিকেট তার পেশা। এখানে আরেকটু সময় ব্যয় করা, ক্রিকেটকে সময় দেওয়া প্রয়োজন।’

লিটনের টেকনিক নিয়ে কোন প্রশ্ন নেই সুজনের। তবে তার চিন্তাধারা ও ট্যাকটিক্সে কোন পরিবর্তন আসতে পারে বলে অনুমান করেন সুজন। তাই মুখে এমন কথা, ‘ক্রিকেটটা মানসিকতার খেলা। লিটনের তো টেকনিক পরিবর্তন হয়নি, ট্যাকটিক্যালি হয়তো চিন্তাধারায় পরিবর্তন আসতে পারে।’

লিটনকে ব্রেক দেয়া সম্পর্কে সুজন বলেন, ‘লিটন একটা ব্রেক চেয়েছে। তার দিনে লিটন ওয়ান অব দ্য বেস্ট প্লেয়ার। আমি সব সময় লিটনের ব্যাটিং অনেক পছন্দ করি। ওর ব্যাটিং দেখা অন্য রকম ব্যাপার। মেন্টালি হয়তো ব্লক আছে। রান করেনি। যদি আমার ওই ফ্লেক্সিবিলিটি না থাকত তাহলে হয়তো আমি লিটনকে এই ব্রেকটা দিতাম না। ফ্লেক্সিবিলিটি আছে, আমাদের যে ব্যাটিং অর্ডার…আমি মনে করি একটা ব্রেক নিয়েই আসুক। তাকে সুপার লিগ থেকে পাব আশা করছি।’

তবে সুপার লিগে ফিরলেও একাদশে জায়গা পাওয়া সহজ হবে না লিটনের, সে আভাসও দিয়েছেন সুজন। তিনি বলেন, ‘আগে কাজটা সহজ ছিল। এখন আর সহজ নেই। আবাহনী এখন জাতীয় দল থেকেও ভালো! আমি কালকে শান্তকে হাসতে হাসতে বলছিলাম, তোর জাতীয় দল থেকে আমার আবাহনী এখন শক্তিশালী। সুতরাং যারা আবাহনীর জন্য প্রতিদিন অনুশীলন করছে, পারফর্ম করছে, তাদের ফেলে দেওয়া সহজ নয়।’

আবাহনী নিয়ে সুজন মনে করেন, তার দল এখন যথেষ্ট শক্তিশালী। তিনি বলেন, ‘আমাদের দলটা যথেষ্ট শক্তিশালী, যথেষ্ট না অনেক শক্তিশালী। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এ রকম এত শক্তিশালী দল কবে ছিল আমার মনে পড়ে না।’