• শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ

পাকিস্তানের কাছে পাত্তাই পেল না ভারত

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩  

শুরুতে দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে চেপে ধরেছিল পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সেই চাপ সামলে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য গড়ে ভারত। তবে ভারতীয় বোলাররা ছিলেন একেবারে সাদা-মাটা। পাকিস্তানি ব্যাটারদের নূন্যতম পরীক্ষাও নিতে পারেননি তারা। ফলে সহজেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছেছে পাকিস্তান।

রবিবার (১০ ডিসেম্বর) অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৫৯ রান সংগ্রহ করে ভারত। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬০ রান করেন উদয়। জবাবে ২ উইকেট হারিয়ে ৪৭ ওভারে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। অপরাজিত ১০৫ রান করে ম্যাচসেরা হয়েছেন আজান আওয়াইস।

২৬০ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি পাকিস্তানের। ৮ রান করে সাজঘরে ফিরেন শ্যামল হোসাইন। তবে আরেক ওপেনার শাহজাইব খান দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন। তার ব্যাট থেকে এসেছে ৬৩ রান।

তিনে নেমে পুরোটা সময় ভারতীয়দের ওপর ছড়ি ঘুরিয়েছেন আজান। এক প্রান্তে দেওয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত সেঞ্চুরি করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন। অপরাজিত ৬৮ রান করে তাকে যোগ্য সঙ্গে দিয়েছেন সাঈদ বেগ।

এর আগে দুই ওপেনারের ব্যাটে দারুণ শুরু করেছিল ভারত। ২৪ রান করা আর্শিনকে সাজঘরে ফিরিয়ে ৩৯ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন আরাফাত মিনহাজ। আর্শিন থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। আরেক ওপেনার আদার্শ হাফ সেঞ্চুরি পেয়েছেন। তার ব্যাট থেকে এসেছে ৮১ বলে ৬২ রান।

তিনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি রুদ্র প্যাটেল। মাত্র ১ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি। সুবিধা করতে পারেননি মুশের খান-আর্ভেলী আভানিশরাও। তবে দলকে কক্ষপথে রেখেছিলেন উদয়। তিনি ৯৮ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেছেন।

পাকিস্তানি বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনেও আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেছেন শচীন দাস। তার কল্যানেই আড়াইশ ছাড়িয়েছে ভারতের রান। শেষ পর্যন্ত ৪২ বলে ৫৮ রান করে আউট হয়েছেন তিনি।