• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
নতুন নতুন অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ ‘কোনো একটি জিনিস না খেলে রোজা হবে না, এ মানসিকতা পাল্টাতে হবে’ পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বারবার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করলে ভোট পাবেন: জনপ্রতিনিধিদের প্রধানমন্ত্রী জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের ব্যবস্থাটা আমরা নিয়েছিলাম কেউ যেন ভুয়া ক্লিনিক-চিকিৎসকের দ্বারা প্রতারিত না হন: রাষ্ট্রপতি স্থানীয় সরকার বিভাগে বাজেট বরাদ্দ ৬ গুণ বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকারকে মাটি-মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়তে হবে শবে বরাতের মাহাত্ম্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের কাজে আত্মনিয়োগের আহ্বান সমাজের অসহায়, দরিদ্র মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে দেশের মানুষের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে

প্রধানমন্ত্রী যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছেন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২৩  

জাতীয় পার্টি-জেপির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি বলেছেন, আসন্ন বিভিন্ন পৌরসভা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও সুষুমভাবে সম্পন্ন করতে হবে। এ সময় সব নির্বাচনি আচরণবিধি মেনে চলা আবশ্যক। কেউ যদি নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেন, যথাযথ কর্তৃপক্ষ দায়িত্বশীলতার সঙ্গে এ ধরনের বেআইনি তত্পরতা কঠোর হাতে মোকাবিলা করবেন বলে জনগণের প্রত্যাশা।

 সোমবার দুপুরে ভাণ্ডারিয়ায় জেপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ভোটদান মানুষের সাংবিধানিক অধিকার। ভোটদানে বাধা দান, নির্বাচনি বিধি লঙ্ঘন করে অর্থ ব্যয়সহ যে কোনো ধরনের বেআইনি তত্পরতা মোকাবিলা করতে হবে। এক্ষেত্রে র্যাব, বিজিবি, পুলিশসহ প্রশাসনকে যথাযথ দায়িত্ব পালনে দৃঢ়তা দেখানো প্রয়োজন। পাশাপাশি নির্বাচনকালীন শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখা সব প্রার্থী এবং এলাকার মুরব্বিদের অবশ্যই পালনীয় দায়িত্ব। তিনি আরো বলেন, ‘আগামী মাসগুলো পৃথিবীর জন্য অস্থিরতা ও অনিশ্চয়তাবহুল হতে পারে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত ধৈর্য ও ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছেন। আমাদেরও সচেতনতা ও সংযমের সঙ্গে সংযত আচরণ করা বাঞ্ছনীয়।’

আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, ‘গত ৩৮ বছর ধরে আমরা ভাণ্ডারিয়াসহ এ এলাকায় মানুষের প্রত্যাশিত উন্নয়নকাজ করেছি। এ সময় আমি রাজনীতির কথা বলি নাই। মানুষের মধ্যে ঐক্য, শান্তি ও সামাজিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সচেষ্ট ছিলাম। উন্নয়নবান্ধব পরিবেশ যাতে নির্বাচনকালে বিনষ্ট না হয়, সে বিষয়ে সবার দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে। ভোটদান যাতে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়, সেদিকে খেয়াল রাখা সমীচীন। আমাদের স্থানীয় নেতৃত্বকে দায়িত্বশীল হতে হবে। যারা মাঝেমধ্যে দায়িত্বজ্ঞানহীন কথা বলেন, টাকার অহংকারে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের চেষ্টা করেন, তাদের এখনই সাবধান হওয়া উচিত। নির্বাচনি আচরণবিধিতে প্রার্থীদের নির্বাচনি সর্বোচ্চ ব্যয়ের সীমা নির্ধারিত রয়েছে। যারা এ সীমা লঙ্ঘন করেন, তাদের মনে রাখতে হবে রাষ্ট্রীয় নিয়মকানুন সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেই কথা বলতে হয়। যে কোনো মূল্যে ভাণ্ডারিয়াসহ এ এলাকায় শান্তি বজায় রাখা উচিত। নির্বাচন নিয়ে উসকানিমূলক ও উত্তেজক আলোচনা প্রত্যাশিত নয়।’

আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপির নিজ বাসভবন তাসমিমা ভিলায় এ মতবিনিময় সভায় ভাণ্ডারিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টি-জেপির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মনিরুল হক মনি জোমাদ্দার সভাপতিত্ব করেন। এখানে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা জেপির নির্বাহী সভাপতি এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাহিবুল হোসেন মাহিম, সিনিয়র সহসভাপতি এবং পৌর কাউন্সিলর মো. গোলাম সরোয়ার জোমাদ্দার, সহসভাপতি ও নদুমুলা শিয়ালকাঠি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. শফিকুল কবির বাবুল তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদার, সহসভাপতি এবং গৌরীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান চৌধুরী, উপজেলা যুব সংহতির সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ সরদার প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেপির উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শফিকুল আলম খোকন সিকদার, দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক গিয়াস উদ্দিন বাবুল, মিজানুর রহমান সেন্টু মোল্লা, মো. কবির হাওলাদার, মো. ফিরোজ আলম, পৌর জেপির সদস্য সচিব আহসানুল কিবরিয়া ফরিদ মল্লিক, মো. জামাল উদ্দিন লিটন হাওলাদার, মো. রেজা আহম্মেদ দুলাল, মো. নাসীর উদ্দিন দুলাল সরদার, উপজেলা যুব সংহতির আহ্বায়ক মো. রেজাউল হক রেজভি জোমাদ্দার, উপজেলা মহিলা পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও মজিদা বেগম মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সহকারী অধ্যাপক হাসিনা বেগম, পৌর কাউন্সিলর মো. কাদের হাওলাদার, মো. হারুন অর রশিদ মুন্সি, মো. সিদ্দিকুর রহমান মুন্সি, বেবী আক্তার, মঞ্জু রানী সিংহ, ফাতেমা আক্তার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির উপজেলা সভাপতি মো. মনির সরদার, পৌর যুব সংহতির সদস্য সচিব মো. সাইদুল ইসলাম মুন্সি, উপজেলা ছাত্রসমাজের আহ্বায়ক মো. জাহিদুল ইসলাম ও পৌর ছাত্রসমাজের আহ্বায়ক মাহাবুব শরীফ শুভ।

সভায় আসন্ন ভাণ্ডারিয়া পৌরসভা নির্বাচনে জাতীয় পার্টি-জেপির মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়। উপজেলা কার্যনির্বাহী সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মাহিবুল হোসেন মাহিমকে ভাণ্ডারিয়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে জেপির দলীয় প্রার্থী এবং তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী হিসাবে গোলাম মোস্তফা জাফরান জোমাদ্দারের নাম ঘোষণা করা হয়।

স্মার্ট ভূমি সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন :জাতীয় পার্টি-জেপির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি গতকাল সোমবার সকালে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা ভূমি অফিসের উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপী স্মার্ট ভূমি সেবার উদ্বোধন করেন। এখানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ভূমি সেবাব্যবস্থায় অটোমেশন পদ্ধতি চালু হওয়ায় মানুষ অনেক উপকৃত হয়েছে। ১৫/২০ বছর আগে ভূমি সেবা কাগজপত্রের মধ্যেই সীমিত ছিল। মিউটেশন, জমির খাজনা দেওয়া, দাখিলা ইত্যাদি প্রক্রিয়ায় সাধারণ মানুষ অনেক ভোগান্তি পোহাত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রচলন করায় মানুষের ভূমি সেবাপ্রাপ্তি অনেক সহজতর  হয়েছে। ডিজিটাল থেকে এখন স্মার্ট সেবা চালু হয়েছে, এজন্য ভূমি মন্ত্রণালয়কে তিনি ধন্যবাদ জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পৌর প্রশাসক সীমা রাণী ধরের সভাপতিত্বে ও সহকারী কমিশনার ভূমি রুমানা আফরোজের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন—জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং ভাণ্ডারিয়া উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মাহিবুল হোসেন মাহিম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসিকুজ্জামান, উপজেলা জেপির সিনিয়র সহসভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর মো. গোলাম সরোয়ার জোমাদ্দার এবং সব ইউনিয়নের তহশিলদার এবং সেবাগ্রহীতারা।

আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি ভাণ্ডারিয়া পৌর শহরের জেপি নেতা মরহুম মোশাররফ হোসেন সরদার এবং উপজেলা ছাত্রসমাজের সাবেক নেতা আফজাল সরদারের বাবা মরহুম চান্দে আলী মাস্টারের কবর জিয়ারত এবং ফাতেহা পাঠ শেষে দোয়া-মোনাজাতে অংশ নেন। এ সময় দোয়া-মোনাজাতে অন্যান্যের মধ্যে জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহিবুল হোসেন মাহিম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসিকুজ্জামান, উপজেলা জেপির সিনিয়র সহসভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর মো. গোলাম সরোয়ার জোমাদ্দার, সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদার, মরহুম মোশাররফ হোসেন সরদারের বড় ভাই পেট্রোবাংলার সাবেক কর্মকর্তা মো. আকতার সরদার, মরহুম চান্দে আলী মাস্টারের বড় ছেলে মো. আফজাল সরদারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী ছাড়াও স্থানীয় প্রবীণ ব্যক্তিবর্গ শরিক হন।