• রোববার ১৯ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪৩১

  • || ১০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ কেউ হতাশ হবেন না: প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নের জন্য কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী বিএনপি ক্ষমতায় এসে সব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয় চমক রেখে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করল বাংলাদেশ শেখ হাসিনার তিন গুরুত্বপূর্ণ সফর: প্রস্তুতি নিচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হজযাত্রীদের ভিসা অনুমোদনের সময় বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ এআইকে স্বাগত জানায় তবে অপব্যবহার রোধে পদক্ষেপ নিতে হবে ছেলেরা কেন কিশোর গ্যাংয়ে জড়াচ্ছে কারণ খুঁজে বের করার নির্দেশ প্রযুক্তিজ্ঞান সম্পন্ন নতুন প্রজন্ম গড়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর এসএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার যত ছাত্রীদের চেয়ে ছাত্ররা পিছিয়ে, কারণ খুঁজতে বললেন প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসির ফল হস্তান্তর জলাধার ঠিক রেখে স্থাপনা নির্মাণে প্রকৌশলীদের আহ্বান প্রধানমন্ত্রী

বিএনপি-জামায়াতের দুঃশাসনের জবাব দিতে ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকায় ভোট দিন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহবায়ক (মন্ত্রী), বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি বলেছেন, আপনাদের নিশ্চয়ই স্মরণ আছে, ২০০১ সালের কথা। বিএনপি জামাত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে আপনাদের উপর কি ধরণের অত্যাচার, জুলুম ও নির্যাতন করেছে। হত্যা, লুট, দখল থেকে শুরু করে জমির ফসল, পুকুরের মাছ, গোয়ালের গরু পর্যন্ত তারা জোর করে নিয়ে গেছে। বিএনপি জামাত জোট সরকার দেশের সম্পদ বিদেশে পাচার করছে। বিএনপি নেতা তারেক রহমান দেশের অর্থ-সম্পদ আত্মসাত ও পাচারের অভিযোগে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছে। সম্প্রতি মহামান্য আদালত তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবায়দা রহমানের ৯ বছর ও ৩ বছর সাজা দিয়েছে। আর বেগম খালেদা জিয়া তো আগেই সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে ছিল, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মানবিক কারণে তাকে কারাগারের পরিবর্তে বাড়ীতে থাকার সুযোগ করে দিয়েছেন। তাই বিএনপি জামাত জোটের দুঃশাসনের কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে সতর্ক থাকতে হবে। আপনারা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিবেদিত, ত্যাগী ও বঞ্চিত নেতৃবৃন্দকে দলে প্রাধান্য দিবেন।

১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্দ্যোগে মাহিলাড়া স্কুল মাঠে আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাটাজোর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, বরিশাল জেলা মহিলা আওামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন্নাহার মেরী, গৌরনদী উপজেলা আওামীলীগ সভাপতি এইচ.এম জনাল আবেদীন, গৌরনদী উপজেলা আওামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান হারিছ,  উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন মুন্সী, মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলুসহ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি আরো বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের সংসদ নির্বাচনে জয়লাভের পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে। রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের প্রতিটি সেক্টরে কাঙ্খিত অগ্রগতি অর্জন করেছেন।ডিজিটাল বাংলাদেশ করেছেন। বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করেছেন।স্বপ্নের পদ্মাসেতু চালু হয়েছে।১৩ লক্ষ গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। ফলে ৫০ লক্ষ দরিদ্র মানুষের ভাগ্য বদলে গেছে।বিভিন্ন ধরণের ভাতা চালু করেছেন। প্রতিটি গ্রামে গঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিক করেছেন; বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বীর নিবাস নির্মাণ করা হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা প্রতিমাসে ২০ হাজার করা হয়েছে।বিনামূল্যে বই বিতরণ করেছেন;মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন করেছেন। ঢাকায় মেট্রো রেল চালু করেছেন। হযরত শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের থার্ড টার্মিনাল; উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত এক্সপ্রেসওয়ে। কর্ণফূলী ট্যানেল করেছেন।রূপপুর পরমানু বিদ্যুৎ কেন্দ্র করেছেন। বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করেছেন। খাদ্য খাটতি দুর করেছেন। ঘরে ঘরে চাকুরীর ব্যবস্থা করেছেন। জনগণের মৌলিক চাহিদা পূরণ করেছেন।

বরিশালে দোয়ারিকা-শিকারপুর সেতু; বরিশাল পৌরসভাকে সিটি করপোরেশনে উন্নীতকরণ; বরিশাল বিমান বন্দর চালুকরণ; বরিশাল শিক্ষা বোর্ড চালুকরণ; বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন; বাকেরগঞ্জে শেখ হাসিনা ক্যান্টনমেন্ট; বরিশালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ; বরিশালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত টিচার্স ট্রেনিং কলেজ; বরিশালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম;বরিশালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত সেতু; বরিশালে চীফ মেট্রপলিটন ম্যাজিস্টেট কোর্ট ভবন; বরিশালে বিভাগীয় শিল্পকলা একাডেমি কমপ্লেক্স; আমানতগঞ্জে ২০০ শয্যার সুকান্ত বাবু শিশু হাসপাতাল; গড়িয়ারপার ১৩২ কেবি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র; বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১০০০ বেডে উন্নীতকরন; বরিশালে মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ স্থাপন; ঢাকা বরিশাল সড়ক ফোর লেনে উন্নীতকরণ; ভাংগা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন;বরিশালের হিজলায় পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন; পাইপ লাইনের মাধ্যমে ভোলা থেকে বরিশালে গ্যাস সংযোগ; বরিশালে স্বতন্ত্র মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন; গৌরনদীকে পৌরসভায় উন্নীতকরণ; আগৈলঝাড়া উপজেলা কমপ্লেক্স নির্মাণ; গৌরনদী উপজেলা কমপ্লেক্স নির্মাণ; গৌরনদীতে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট; গৌরনদীতে টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টিটিসি); গৌরনদী বাসস্ট্যান্ডে ৫০০ আসন বিশিষ্ট অত্যাধুনিক অডিটোরিয়াম; গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-পয়সারহাট-কোটালীপাড়া-গোপালগঞ্জ সড়ক; আগৈলঝাড়া বাইপাস সড়ক; পয়সারহাট সেতু; আগৈলঝাড়ায় মুক্তিযুদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ; গৌরনদীতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ; আগৈলঝাড়ায় মেডিকেল টেকনোলজী ট্রেনিং সেন্টার (ম্যাটস); গৌরনদী ও আগৈলঝাড়ায় মডেল মসজিদ নির্মাণ; ১০ বেডের ৪টি মা ও শিশু হাসপাতাল নির্মাণ; দুইটি হাইস্কুল ও ২টি কলেজ সরকারিকরণ; অসংখ্য স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার ভবন নির্মাণ; গৌরনদী ও আগৈলঝাড়ায় অসংখ্য রাস্তা ঘাট, ব্রীজ- কালভার্ট ও হাট-বাজার উন্নয়ন; গৌরনদী ও আগৈলঝাড়ার প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ; কুতুবপুর সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আরো বলেন আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে আবারও বিজয়ী করতে হবে। তাই এখন থেকেই আপনাদের জনগণের পাশে গিয়ে শেখ হাসিনার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরতে হবে। জনগণের শক্তিই শেখ হাসিনার বড় শক্তি। আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার আবার ক্ষমতায় আসবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ সুখী, সমৃদ্ধ, উন্নত স্মার্ট দেশে পরিণত হবে ইনশাল্লাহ্।