• রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪৩০

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আ.লীগ ক্ষমতায় আসে জনগণকে দিতে, আর বিএনপি আসে নিতে: প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা রাষ্ট্রপতির দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কিশোর অপরাধীদের মোকাবেলায় বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্রের প্রতি বিএনপির কোনো দায়বদ্ধতা নেই : ওবায়দুল কাদের ব্রাজিলকে সরাসরি তৈরি পোশাক নেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর জুলাইয়ে ব্রাজিল সফর করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী আদর্শ নাগরিক গড়তে প্রশংসনীয় কাজ করেছে স্কাউটস: প্রধানমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় স্কাউট আন্দোলনকে বেগবান করার আহ্বান তিন দেশ সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী লাইলাতুল কদর মানবজাতির অত্যন্ত বরকত ও পুণ্যময় রজনি শবে কদর রজনিতে দেশ ও মুসলিম জাহানের কল্যাণ কামনা প্রধানমন্ত্রীর সেবা দিলে ভবিষ্যতে ভোট নিয়ে চিন্তা থাকবে না জনপ্রতিনিধিদের জনসেবায় মনোযোগী হওয়ার আহ্বান জনগণের সেবা নিশ্চিত করতে পারলে ভোটের চিন্তা থাকবে না দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে চীনের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী সরকারের বাস্তবমুখী পদক্ষেপের ফলে শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার কমেছে ফিলিস্তিনের প্রতি সংহতি জানিয়ে প্রেসিডেন্টকে শেখ হাসিনার চিঠি রূপপুরে আরেকটি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য আহ্বান

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে কলেজছাত্রীর অনশন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৬ আগস্ট ২০২৩  

বরিশাল সদর উপজেলার কুন্দিয়াল পাড়া এলাকায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে বসেছেন এক কলেজছাত্রী। শুক্রবার সকাল থেকে প্রেমিক সাইদুল ইসলামের বাড়ির সদর দরজায় আমরণ অনশনে বসেন ঐ ছাত্রী। সাইদুল ইসলাম একই এলাকার হাওলাদার বাড়ির আছমত আলী হাওলাদারের ছেলে। সাইদুল সাহেবের হাট ফাজিল মাদরাসার ছাত্র। ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী বরিশাল সদর উপজেলার বাসিন্দা।

অনশনরত কলেজছাত্রী জানান, দীর্ঘ চার বছর ধরে সাইদুলের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন সাইদুল ইসলাম। গত ১৮ আগস্ট পুনরায় ধর্ষণ করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েন সাইদুল। পরে স্থানীয় কয়েকজন মীমাংসার কথা বলে সাইদুলকে ছাড়িয়ে আনেন। এরপর থেকে সাইদুল তার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। বিয়ের দাবিতে সাইদুলের বাড়িতে আসলে তার পরিবারের সদস্যরা দরজায় তালা দিয়ে সরে পড়েন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন কালাম বলেন, বিষয়টি শুনে ঐ বাড়িতে যাই। কিন্তু আছমত আলী হাওলাদারের ঘরে কোনো লোকজন না থাকায় কথা বলতে পারিনি। পরে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেছি।

বন্দর থানার ওসি এআর মুকুল বলেন, বিষয়টি শুনেছি। আমরা কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।