• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৬ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র

হিজলায় আসপিয়ার মায়ের হাতে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রায়ন প্রকল্পের ঘরের দলিল ও চাবি হস্তান্তর

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২ ফেব্রুয়ারি ২০২২  

বরিশাল প্রতিনিধি: পুলিশ বাহিনীতে কনষ্টবল পদে চাকুরীর পর আসপিয়া ইসলামের স্থায়ী ঠিকানা ও নিশ্চিত হলো। প্রধানমন্ত্রীর আশ্রায়ন প্রকল্পের আওতায় বরাদ্ধ জমির দলিল ও নির্মিত ঘরের চাবি গতকাল মঙ্গলবার স্বারম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আসপিয়ার মা ঝর্না বেগমের হাতে তুলে দেন বরিশাল- ৪ আসনের সংসদ সদস্য পংকজ দেবনাথ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বরিশালের জেলা প্রশাসক মো. জসীম উদ্দীন হায়দার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বকুল চন্দ্র কবিরজ, উপজেলা চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ঢালী প্রমুখ। নবনির্মিত বাড়ির উঠানে  ১লা ফেব্রুয়ারী, মঙ্গলবার  দলিল ও চাবি প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। নতুন ঘরের চাবি পেয়ে আনন্দে আপ্লুত আসপিয়ার মা ঝর্না বেগম।

উল্লেখ্য, গত ২৫ ডিসেম্বর বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেনর পক্ষে হিজলা থানার এসআই মিজান কলেজছাত্রী আসপিয়া ইসলামকে পুলিশ কনষ্টবল পদে নিয়োগপত্র হস্তান্তর করেন। আসপিয়া রংপুরে ৬ মাসের প্রশিক্ষণে আছেন। কনষ্টবল পদে নিয়োগ পরীক্ষায় বরিশাল জেলায় মেধাতালিকায় পঞ্চম স্থান অর্জন করেছিলেন হিজলা উপজেলার মৃত শফিকুল ইসলামের মেয়ে কলেজছাত্রী আসপিয়া ইসলাম। তাকে চুড়ান্ত নিয়োগপত্র দেয়ার আগে পুলিশী তদন্তে জানা যায়, তারা হিজলা উপজেলার ভাড়াটিয়া বাসিন্দা। তাদের স্থায়ী নিবাস ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলায়। তবে আসপিয়ার জন্ম ও লেখপড়া সবকিছুই হিজলাতে। চাকুরী আবেদনপত্রে তার স্থায়ী ঠিকানা উল্লেখ করা হয়েছিল হিজলা উপজেলা। স্থায়ী ঠিকানা নিয়ে আইনী জটিলতায় তার নিয়োগপত্র আটকে যায়।