• শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ কেউ হতাশ হবেন না: প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নের জন্য কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী বিএনপি ক্ষমতায় এসে সব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয় চমক রেখে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করল বাংলাদেশ শেখ হাসিনার তিন গুরুত্বপূর্ণ সফর: প্রস্তুতি নিচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হজযাত্রীদের ভিসা অনুমোদনের সময় বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ধারের টাকা ফেরত চাইতে ‘অ্যাসিড’ সন্ত্রাসের শিকার হলো বাবা-মাসহ ১৮ মাসের শিশু

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৮ জানুয়ারি ২০২৪  

চাচাদের ছোড়া অ্যাসিড জাতীয় তরলে শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে গেছে ১৮ মাসের এক মেয়ে শিশুর। তার বাবা-মাও এই অ্যাসিড সন্ত্রাসের শিকার হয়েছেন। ধারের টাকা ফেরত চাইতে গিয়ে এ ঘটনার শিকার হয়েছেন, এমন দাবি করছেন ভুক্তভোগীরা। আর এ ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। ভুক্তভোগীরা বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) রাতে সদর উপজেলার চর নেহালগঞ্জ এলাকার রশিদ হাওলাদারের বাড়িতে অ্যাসিড সন্ত্রাসের ঘটনাটি ঘটে। এসিডে মুখ ঝলসে যায় রিয়াজ হাওলাদার নামে এক দিনমজুরের। তিনি জানান, প্রতিবেশী ও সম্পর্কে চাচাতো ভাই ফিরোজ ও মিরাজদের সঙ্গে তার জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। কয়েকবছর আগে তার কাছ থেকে ফিরোজ ও মিরাজ এক লাখ টাকা ধার নিয়েছিলেন। ওই টাকা চাইতে গেলে বিভিন্ন সময় নানা টালবাহানা ও হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিলেন চাচাতো ভাইরা।

রিয়াজ, আমাদের ঘরেই ঘটনাটি ঘটে। স্ত্রী খাদিজা বেগম ও ১৮ মাসের সন্তান জান্নাতীসহ আমরা শুয়ে ছিলাম। রাত ৯টার পরে ঘরের জানালা দিয়ে আমাদের ওপর অ্যাসিড হামলা চালানো হয়। আমার চাচা খালেক হাওলাদারের ছেলে ফিরোজ-মিরাজ এবং নিজাম ও নাসির ঘটনার সময় আমার ঘরের সামনে ছিল। অ্যাসিডে খাদিজার শরীরের পেছনের অংশ জান্নাতী ও আমার মুখসহ শরীরের বেশ কয়েকটি স্থানে পুড়ে গেছে। স্থানীয়রা গণ্ডগোল টের পেয়ে এগিয়ে এসে আমাদের শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে।

খাদিজা বেগম দোষীদের শাস্তি দাবি করে বলেন, টাকা-পয়সা ও জমিজমা নিয়ে বিরোধ থাকলে আমাদের সাথে আছে। কিন্তু অবুঝ শিশু সন্তানটি কি দোষ করেছে? ওর গায়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করার কি দরকার ছিল। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

স্থানীয় একটি সূত্রে জানা গেছে, থানায় ঘটনাটি নিয়ে কোনো অভিযোগ দায়ের না হলেও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অ্যাসিড নিক্ষেপের সত্যতা পেয়েছে। জড়িতদের আটকের অভিযান চালাচ্ছে। কিন্তু যারা ঘটনাটি ঘটিয়েছে তারা আত্মগোপনে চলে গেছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মেট্রোপলিটনের বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহমান মুকুল। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে এসব তথ্য জানিয়ে মুকুল বলেন, পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছ। যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িতদের আটক করতে অভিযান চলছে।