• মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪৩১

  • || ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ঢাকাবাসীকে সুন্দর জীবন উপহার দিতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমাল : ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়: প্রধানমন্ত্রী সকালেই প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে রেমাল, আছড়ে পড়বে মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড় রেমাল : পায়রা ও মোংলা বন্দরে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান

প্রাকৃতিক উপায়ে ঠাণ্ডা রাখুন ঘর

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২৪  

ভীষণ গরম পড়া শুরু হয়েছে। সূর্যের তেজ যেন বেড়েই যাচ্ছে। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই এতটুকু। এমন সময় অনেকেই এসি চালিয়ে রাখেন। কিন্তু সারাক্ষণ এসি চালিয়ে রাখা যেমন সম্ভব না তেমনি অনেকের বাড়িতেই এসি নেই। এ ক্ষেত্রে সমাধান টানতে পারেন প্রাকৃতিক উপায়ে। কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়েই ঘরের ভেতরের আবহাওয়া ঠাণ্ডা রাখতে পারবেন জেনে নিন।

সকালের রোদে তাপ ততটা না থাকলেও দিন গড়াতে থাকলে রোদের তীব্রতাও বাড়তে থাকে। জানালা বন্ধ করে পর্দা টেনে দিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে। বিশেষ করে সকাল ১০টার পর থেকে তাপ বাড়তে থাকে। তাই এ সময় জানালা বন্ধ রেখে পর্দা টেনে দিলে ঘরে তাপ ঢুকবে কম। পাখা চলিয়ে রাখলেও আরাম পাবেন। আবার বিকেলের দিকে জানলা খুলে দিন। মুখোমুখি জানালা থাকলে ঘরে হাওয়া বাতাস চলাচল করবে ভালো।

সুতির বা লিনেনের মতো প্রাকৃতিক ফ্যাব্রিকের পর্দা এবং বেড শিট ব্যবহার করুন। তা যেন হালকা রঙের হয়। হালকা রঙের চাদর আর পর্দা তাপ প্রতিফলিত করবে, এতে ঘর ঠাণ্ডা রাখতে সুবিধা হবে। চাদর আর পর্দা বেশি ময়লা হওয়ার আগেই ধুয়ে ফেলুন।

আবছা অন্ধকার ঘর বেশি ঠাণ্ডা হয়। ঘরে আলো কম হলে ঠাণ্ডা ভাব থাকে বেশি। তবে কিছু কাজ রয়েছে যা হয়তো অল্প আলোয় করা সম্ভব না। সে ক্ষেত্রে টিউবলাইটের চেয়ে সিএফএল ল্যাম্পের আলো বেশি ঠাণ্ডা। সম্ভব হলে তা বদলে নিতে পারেন।

ঘরের মধ্যে গাছ রাখলে তা দেখতেও সুন্দর লাগে, তাপও শুষে নেয়। মানিপ্লান্ট, অ্যালোভেরা, স্নেক প্লান্ট, এরিকা পাম ঘরে রাখলে সুন্দর লাগে দেখতে। তবে কারো পরাগরেণুতে অ্যালার্জি থাকলে গাছ রাখার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিন একবার।

রান্না করার সময় ঘরের ভেতরটা গরম হয়ে যায়। তাই অবশ্যই এগজস্ট ফ্যান চালিয়ে রাখুন। সম্ভব হলে সকাল সকাল রান্না সেরে ফেলুন।

ঘর,জানলার গ্রিল দিনে দুইবার পানি দিয়ে মুছে রাখলেও ঘরের তাপমাত্রা কমে যায়। ঘর মুছে পাখা চালিয়ে দিন। তার আগেই জানলা বন্ধ করে পর্দা টেনে দিন। ঘর ঠাণ্ডা থাকবে।

খেয়াল রাখুন, যাদের ঘরের দেয়ালের রং হালকা বা সিলিংয়ে সাদা রং লাগানো আছে, তাদের ঘর ঠাণ্ডা রাখাও অপেক্ষাকৃত সহজ। তেমনি যদি আপনার ঘরে পশ্চিমমুখী জানালা বা বারান্দা থাকে, তাহলে বেশি তাপ ঢুকবে।