• সোমবার ২৪ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৯ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায়

উহানের ল্যাবই কোভিডের উৎস কি না, তদন্ত করেছে চীনও

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১ জুন ২০২৩  

পৃথিবীর ২৫ লাখ মানুষের প্রাণ কেড়ে নেওয়া কোভিড মহামারির উৎস হয়তো চীনের উহান শহরের একটি ল্যাবরেটরি - এমন সম্ভাবনা গত তিন বছর ধরেই জোরালোভাবে অস্বীকার করে আসছে চীন।

কিন্তু এখন চীনেরই একজন শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানী বলছেন, এমন সম্ভাবনা পুরোপুরি উড়িয়ে দেওয়া ঠিক নয়, এবং চীনা কর্তৃপক্ষ নিজেও কোভিডের উৎস অনুসন্ধানের জন্য উহানের ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির ল্যাবরেটরিতে একটি তদন্ত চালিয়েছিল।

অধ্যাপক জর্জ গাও হচ্ছেন চীনা সরকারের একজন সাবেক বিজ্ঞানী, সে দেশের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল বা সিডিসির চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি। সে সময়ে মহামারি মোকাবিলা এবং এই সার্স-কোভ-টু ভাইরাসের উৎস সন্ধানের প্রয়াসে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন তিনি।
 
বিবিসি রেডিও ফোরের এক অনুষ্ঠানে দেওয়া সাক্ষাতকারে অধ্যাপক গাও বলেন, আপনি যে কোনো কিছুকেই সন্দেহ করতে পারেন। এটিই বিজ্ঞান, কোনো সম্ভাবনাকেই বাদ দেবেন না।  

অধ্যাপক গাও একজন বিশ্ববিখ্যাত ভাইরোলজিস্ট এবং ইমিউনোলজিস্ট। তিনি গত বছর সিডিসি থেকে অবসর নিয়েছেন এবং এখন তিনি চীনের ন্যাশনাল ন্যাচারাল সায়েন্স ফাউন্ডেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট।

অধ্যাপক গাও বলেন, কোভিডের ভাইরাস ল্যাবরেটরি থেকেই ছড়িয়েছিল কি না তা বের করতে উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি তদন্ত চালানো হয়েছে।

এতে আভাস পাওয়া যায় যে, চীনের সরকারি বিবৃতিতে যাই বলা হোক না কেন - তারা হয়তো ভেতরে ভেতরে এই ল্যাব-লিক তত্ত্বটিকে বেশ খানিকটা গুরুত্ব দিয়েছে।  

সরকার এ রকম কিছু একটা আয়োজন করেছিল- বলেন অধ্যাপক গাও। তবে এতে তার নিজের বিভাগ বা সিডিসিকে জড়িত করা হয়নি বলেও তিনি জানান। এই বিজ্ঞানী বলেন, বিশেষজ্ঞ তাদের দিয়ে ওই ল্যাবটিকে পুনরায় পরীক্ষা করে দেখা হয়েছিল।

তবে অধ্যাপক গাও বলছেন, তিনি ওই তদন্তের ফলাফল দেখেননি, তবে শুনেছেন যে, ওই ল্যাবটিতে সেরকম কিছুই পাওয়া যায়নি ।