• শুক্রবার ২৪ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ কেউ হতাশ হবেন না: প্রধানমন্ত্রী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির আহতদের চিকিৎসায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নের জন্য কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী বিএনপি ক্ষমতায় এসে সব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয় চমক রেখে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করল বাংলাদেশ শেখ হাসিনার তিন গুরুত্বপূর্ণ সফর: প্রস্তুতি নিচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হজযাত্রীদের ভিসা অনুমোদনের সময় বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

শিক্ষকদের ওপরে এই মুহূর্তে অনেক বেশি বিনিয়োগ করতে হবে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৩১ মার্চ ২০২৪  

অবকাঠামোগত বিনিয়োগে রাস টেনে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপরে এই মুহূর্তে অনেক বেশি বিনিয়োগ করতে হবে বলে মনে করেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। শনিবার (৩০ মার্চ) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনসিটিটিউটে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় মন্ত্রী একথা বলেন।

শিক্ষায় বিনিয়োগ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা এবং শিক্ষার্থীদের উপর বিনিয়োগ বাড়ছে। যেহেতু অনেক ধরনের অবকাঠামোগত কাজ প্রায় শেষ হয়েছে অনেক জায়গায়, অবকাঠামোগত বিনিয়োগ আমাদের অনেক হয়েছে ইতোমধ্যে হয়েছে। সেগুলোতে কিছুটা রাস টেনে এনে আমরা মনে করি শিক্ষকের ওপরে এই মুহূর্তে অনেক বেশি বিনিয়োগ করতে হবে। আমরা এখনও দেখি প্রশাসনিক ভবনের জন্য অনুরোধ পাই দশতলা, বিশতলা। কিন্তু একাডেমিক কার্যক্রমের জন্য সেটা সেভাবে দেখা যায় না। শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়ন না, আমাদের গুণগত উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে।  

মন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষকদের সম্মানী-বেতন-সুযোগ-সুবিধা অবশ্যই সেগুলোতে অনেক পরিবর্তন করতে হবে। এজন্য আমরা বলছি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষকের ভূমিকা সবচাইতে মুখ্য।

 তিনি বলেন, অনেক স্তরের শিক্ষক আছে। শিক্ষকদের মধ্যে মানসিক ও পেশাগত দূরত্ব যেন না থাকে। শুধু ক্যাডারভিত্তিক উন্নয়ন হলে হবে না। আমাদের সার্বজনিনভাবে চিন্তা করতে হবে। তাহলে দাবিটা শক্তিশালী হতে হবে।  

প্রশাসনে শিক্ষকদের প্রবেশযোগ্যতা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রশাসনে শিক্ষক হিসেবে কোন অংশে অংশগ্রহণ করা উচিত, আবার কোন অংশে সুনির্দিষ্ট দক্ষতা বা যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতার কমতি আছে। সেক্ষেত্রে আমাদের প্রশাসকের জায়গাটাতে কতটুকু হস্তক্ষেপ থাকবে আবার থাকবে না সেগুলোও আলোচনায় আসতে হবে।

কঅনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর নেহাল আহমেদ, বাংলা একাডেমির ফেলো প্রফেসর রতন সিদ্দিকী, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির সভাপতি মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. শওকত হোসেন মোল্ল্যা প্রমুখ।