• সোমবার ২৪ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১০ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ

রপ্তানিকারকদের ডলার মূল্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত বদলাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২১ মে ২০২৪  

ডলারের মূল্য বেশি পেতে রপ্তানি করা পণ্যের আয় অনেকে সময়মতো দেশে আনছেন না। এজন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক নির্দেশনা দেয়, রপ্তানি আয় যে সময় দেশে আসার কথা ছিল, সে সময়ের ডলারের দাম অনুযায়ী মূল্য পাবেন রপ্তানিকারক। এখন এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নতুন নির্দেশনা দিয়ে জানিয়েছে, যখন রপ্তানি আয় আসবে তখনকার ডলারের দামেই মূল্য পাবেন রপ্তানিকারক।

অর্থাৎ এখন থেকে যে দিন রপ্তানি আয় নগদায়ন করা হবে ওই দিনের ডলারের বিনিময় হার অনুসারে অর্থ পাবেন রপ্তানিকারকরা।

সোমবার (২০ মে) বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করেছে। এর ফলে যে কেউ পুরোনো আয় দেশে আনলেও বর্তমান রেট ১১৭ টাকা ৫০ পয়সা দামে রপ্তানি আয় পাবেন।

দুই বছর ধরে চলা ডলারের সংকটের মধ্যে রপ্তানি আয় সময়মতো দেশে আনতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে রপ্তানি আয় সময়মতো দেশে আসছে না। সময়মতো আয় দেশে না আনলে অর্থ পাচারের জন্য আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ থাকলেও এমন উদ্যোগ দেখা যায় না।

এর আগে গত বছরের ৩০ অক্টোবর রপ্তানি আয় প্রত্যাবাসিত দিনের ডলার রেট দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। তার আগে ডলার রেট বাড়তে থাকায় অনেক ব্যবসায়ী বেশি রেট পাওয়ার আশায় রপ্তানি আয় নির্ধারিত সময়ে আনেননি। তাই বাংলাদেশ ব্যাংক গত বছরের মার্চে একটি নির্দেশনা দিয়ে বলে, রপ্তানি আয় ১২০ দিনের মধ্যে দেশে আনার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এসময়ের মধ্যে রপ্তানি আয় আনতে না পারলে পরবর্তী যে সময় আনা হোক গ্রাহক পেমেন্ট পাবে শিপমেন্ট হওয়ার ১২০ দিনের দিন যে হার ছিল সেই হারে এবং অতিরিক্ত টাকা সংশ্লিষ্ট এডি শাখার সান্ড্রি হিসেবে সংরক্ষণ করতে হবে। নতুন নির্দেশনায় সময় তুলে দেওয়া হয়েছে। এখন থেকে যখন রপ্তানি আয় আসবে, তখনকার ডলারের দামেই মূল্য পাবেন রপ্তানিকারক।