• বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

পরীক্ষামূলক উৎপাদনে দেশের প্রথম বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্র

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২৩  

কক্সবাজারে নির্মিতব্য দেশের প্রথম বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই এখান থেকে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে ৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

নবায়নযোগ্য জ্বালানির অন্যতম উৎস বায়ু। বাংলাদেশের মোট ৭২৪ কিলোমিটার দীর্ঘ উপকূলীয় অঞ্চল বায়ুবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য উপযুক্ত ক্ষেত্র। এখানে দূষণমুক্ত শক্তিটি উৎপাদনের উল্লেখযোগ্য সম্ভাবনা রয়েছে। তাই দেশে পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ বা ক্লিন এনার্জির ক্ষেত্র সম্প্রসারণের জন্য এগিয়ে এসেছে সরকার।

কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলে চলছে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ে দেশের প্রথম ও বৃহত্তম বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণকাজ। পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ ক্ষেত্র সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় উপকূলবর্তী ৩টি ইউনিয়নে নির্মাণ করা হচ্ছে ২২টি টারবাইন। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে ১০টি। যার প্রতিটির উৎপাদন ক্ষমতা ৩ মেগাওয়াট।

পরীক্ষামূলকভাবে ১০টি টারবাইনে উৎপাদিত ৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আগামী কয়েকদিনের মধ্যে যুক্ত হবে জাতীয় গ্রীডে। আর চলতি বছরের ডিসেম্বরে যুক্ত হবে ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। কক্সবাজারে বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইউএস-ডিকে গ্রিন এনার্জি লিমিটেড।

প্রকল্প কর্মকর্তা ইউএস-ডিকে গ্রীন এনার্জি লিমিটেডের পরিচালক সাজিদ রহমান বলেন, বায়ু বিদ্যুৎ ক্লিন এনার্জি সবরাহের পাশাপাশি উপকূলীয় এলাকার উন্নয়ন সাধনও করছে।

প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার জহিরুল ইসলাম খান বলেন, নভেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে পুরো প্রকল্পের কাজ। এ ছাড়াও এটি সম্প্রসারণ করে আরও ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। চলমান প্রকল্পটি শেষ হওয়ার আগেই অনুমোদন পেয়ে গেলে সেটির কাজও শুরু করা হবে।

এদিকে সফল প্রকল্প হওয়ায় সরকার প্রস্তাবটি বিবেচনায় নিয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক ই ইলাহি চৌধুরী। তিনি বলেন, এটি বাংলাদেশের প্রথম সফল টারবাইনভিত্তিক প্রকল্প। খুরুশকুলের এই প্রকল্পে আরো ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সম্প্রসারণের প্রস্তাব বিবেচনায় রয়েছে।