• সোমবার ২৪ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১০ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ

শত কোটি টাকা আত্মসাৎ: ইউসিবিএলের সাবেক এমডির বিরুদ্ধে মামলা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২৪  

ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের (ইউসিবিএল) ১০৯ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. শাহজাহান ভুঁইয়াসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১৩ মে) দুদকের বগুড়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুদকের সহকারী পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/৪২০/১০৯ ধারা এবং দুর্নীতি দমন প্রতিরোধ আইন- ১৯৪৭ এর ৫ (২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

মামলায় ইউসিবিএলের সাবেক এমডি শাহজাহান ভূঁইয়া ছাড়াও ঋণ গ্রহীতা ব্যবসায়ী সমীর প্রসাদ দত্তকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ইউসিবিএল থেকে ২০১০ সালে মাত্র ১৩ কোটি টাকার সম্পদ জামানত রেখে ঋণ প্রদানের নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করে মেসার্স দত্ত ট্রেডার্সের প্রোপাইটর সমীর প্রসাদ দত্তের নামে ৫৮ কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুর করা হয়। পরে ছয় মাস না যেতেই গ্রহীতা ঋণ প্রদানে ব্যর্থ হওয়ায় পরে তাকে ঋনের সুদ মওকুফ করে অবৈধ সুবিধা প্রদান করা হয়। আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ও অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যাংকের ঋণের অর্থ সুদ-আসলসহ ১০৯ কোটি ২০ লাখ ৯৯ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।