• মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪৩১

  • || ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ঢাকাবাসীকে সুন্দর জীবন উপহার দিতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমাল : ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়: প্রধানমন্ত্রী সকালেই প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে রেমাল, আছড়ে পড়বে মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড় রেমাল : পায়রা ও মোংলা বন্দরে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান

শিশু আহসান হত্যা: দায় স্বীকার করে যা বললেন আসামি

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল ২০২৪  

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে চাঞ্চল্যকর সাড়ে তিন বছরে শিশু আহসান উদ্দিন বিশ্বাস হত্যা মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার (৭ এপ্রিল) গভীর রাতে উপজেলার কচুড়িয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি শিকার করেছেন। গ্রেফতাররা হলেন- বাগেরহাটের মোল্লাহাটের কচুড়িয়া গ্রামের মো. আসাদ শেখের ছেলে মো. আকবর শেখ (২৩) এবং আফজাল শেখের ছেলে হিজবুল্লাহ শেখ (২৪)।

সোমবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত খান।

এর আগে শুক্রবার (৫ এপ্রিল) বিকেলে মোল্লাহাট উপজেলার কচুড়িয়া গ্রামে নানা ফিরোজ আহমেদের বাড়ি থেকে আম কুড়াতে বের হয়ে নিখোঁজ হয় শিশু আহসান উদ্দিন বিশ্বাস। ওই রাতেই শিশুটির বাবা কামরুজ্জামান বিশ্বাস বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। পরের দিন শনিবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে কচুড়িয়া এলাকার দাউদের পানের বরজের পাশ থেকে পলিথিন ও সার্জিক্যাল টেপে হাত-পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত খান বলেন, সাধারণ ডায়েরি করার পর থেকে শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশ তৎপর ছিল। একদিন পরে আমরা এলাকাবাসীর সহায়তায় শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করি।

পরে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলার দুই আসামিকে আমরা গ্রেফতার করেছি। গ্রেফতাররা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

এ ছাড়াও এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আর কেউ জড়িত আছে কিনা তা জানতে পুলিশ কাজ করছে। জমি সংক্রান্ত ও পারিবারিক বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। শিগগিরই হত্যার বিষয়ে সব তথ্য দেয়া যাবে।