• শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ

নিয়োগ পরীক্ষায় বিশেষ ডিভাইস ব্যবহার, আটক ৩৫

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০২৩  

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে অভিনব উপায়ে তৈরি মাস্টারকার্ডের মধ্যে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস সংযুক্ত করে জালিয়াতি করার অভিযোগে মূলহোতাসহ ৩৫ জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১৩)। এর মধ্যে ৩০ পরীক্ষার্থী রয়েছেন।

শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে গাইবান্ধার বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়। র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইমরান হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালীন বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে ৩০ পরীক্ষার্থীকে ডিভাইসসহ আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ২২টি ইলেকট্রনিক ডিভাইস সংযুক্ত মাস্টারকার্ড, ১৯ টি ব্লুটুথ ডিভাইস ও ১৬টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

র‌্যাবের সহকারী পরিচালক আরও বলেন, আটকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে এসব ডিভাইস সরবরাহকারী মূলহোতা পাঁচজনকে আটক করা হয়। পরীক্ষার্থীরা জানায়, বিশেষ ডিভাইস ব্যবহার করে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য জালিয়াত চক্রের সঙ্গে চুক্তি করা হয়। কেউ চার লাখে, আবার কেউ ৬ বা ৭ লাখ টাকায় চুক্তি করেন। এরমধ্যে ৫০ ভাগ টাকা আগে দিতে হয়েছে এবং বাকি টাকা পরীক্ষার হল থেকে বের হয়ে দেওয়ার চুক্তি হয়েছিল।

আটক হওয়া ৩৫ জনের মধ্যে কেউ কেউ বেসরকারি স্কুল কলেজের শিক্ষক রয়েছেন। এদের সঙ্গে বেশ কয়েকজন নারীও রয়েছেন বলে জানায় র‌্যাব। আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে থানায় হস্তান্তর করা হবে।