• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
নতুন নতুন অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ ‘কোনো একটি জিনিস না খেলে রোজা হবে না, এ মানসিকতা পাল্টাতে হবে’ পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বারবার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করলে ভোট পাবেন: জনপ্রতিনিধিদের প্রধানমন্ত্রী জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের ব্যবস্থাটা আমরা নিয়েছিলাম কেউ যেন ভুয়া ক্লিনিক-চিকিৎসকের দ্বারা প্রতারিত না হন: রাষ্ট্রপতি স্থানীয় সরকার বিভাগে বাজেট বরাদ্দ ৬ গুণ বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকারকে মাটি-মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়তে হবে শবে বরাতের মাহাত্ম্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের কাজে আত্মনিয়োগের আহ্বান সমাজের অসহায়, দরিদ্র মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে দেশের মানুষের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে

স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রীর যাবজ্জীবন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২৩  

স্বামীকে গলা টিপে শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনার মামলায় স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। একই সঙ্গে আসামিকে ২০ হাজার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) পঞ্চম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শরীফুর রহমানের আদালত এ রায় দেন।

দণ্ডিত মিনু আক্তার (২৯) পটিয়ার কুসুমপুরা এলাকার সৈয়দ আহমদের মেয়ে।

মামলার নথিপত্র পর্যালোচনা করে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী আবদুর রহিমকে গলা টিপে খুন করেন মিনু আক্তার। কিন্তু মিনু পুলিশকে জানান তিনি তার স্বামীকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পান। পরে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে রহিমকে গলা টিপে খুন করা হয়েছে বলে জানানো হয়। ২০১৪ সালের ১৮ জানুয়ারি স্বামী খুনের দায়ে স্ত্রী মিনু আক্তারকে আসামি করে মামলা করে পটিয়া থানা পুলিশ। ২০১৪ সালের ২০ মার্চ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। ২০১৫ সালের ২৫ মার্চ আসামির বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত।

ট্রাইবুনালের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর জ্ঞানতোষ চৌধুরী জানান, স্বামীকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে আদালত আসামিকে ২০ হাজার অর্থদন্ডসহ অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ড দেন। মোট ১১ জন সাক্ষীর মধ্যে ৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত এ রায় দিয়েছেন। আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।