• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী

উত্তরের জেলায় উৎপাদন ৩ হাজার কোটি টাকার সবজি

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২২  

উত্তরবঙ্গের চার জেলা পাবনা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও জয়পুরহাটে এবার ২ হাজার ৯০০ কোটি ৬৬ লাখ ২৫ হাজার টাকার শীতকালীন সবজির উৎপাদন হয়েছে।
কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন, এ বছর বগুড়ায় ১০ হাজার ৯৩৩ হেক্টর আবাদি জমি থেকে ৩ লাখ ৫ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন সবজি পাওয়া যাবে।

পাবনার ২২ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ৫ লাখ ৬৫ হাজার ১৫০ মেট্রিক টন সবজিু। সিরাজগঞ্জে ৮ হাজার ৮০০ হেক্টর জমি থেকে উৎপাদন হবে ১ লাখ ৮৫ হাজার ৬৮০ মেট্রিক টন সবজি। আর জয়পুরহাটে ৫ হাজার ৭০ হেক্টর জমিতে সবজির আবাদ হয়েছে। এই জেলায় সবজির উৎপাদন হবে ১ লাখ ৩ হাজার ৯৩৫ মেট্রিক টন।

জয়পুরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা জুয়েল রানা বলেন, উত্তরের এই চার জেলার প্রতি মেট্রিক টন সবজির গড় দাম ধরা হয় প্রায় ২৫ হাজার টাকা।

একই কথা বলেন বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. ফরিদুর রহমান।

তাদের হিসাব অনুযায়ী পাবনায় উৎপাদন হয়েছে ১ হাজার ৪১২ কোটি ৮৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার সবজি, সিরাজগঞ্জে ৪৬৪ কোটি ২০ লাখ, বগুড়ায় ৭৬৩ কোটি ৭৫ লাখ ও জয়পুরহাটে ২৫৯ কোটি ৮৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকার সবজি।

উত্তরের এই চার জেলায় বেগুন, টমেটো, শীম, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ওলকপি, মূলা, লাউ, চাল কুমড়া, মিস্টি কুমড়া, পটল, বরবটি, শসা, ক্ষিরা, ঝিঙা, গাঁজর, ঢ়েঁড়স, চিচিঙা, কাকরোল, করলা, লালশাক, পুঁইশাক, পালংশাক, ধনিয়াপাতা, সরিষা শাক, মুখিকচু, সজিনা, মেটে আলুসহ আরও অনেক সবজির আবাদ হয়েছে।

৪২ বছর ধরে সবজির ব্যবসায় করে আসছেন বগুড়ার গাবতলী উপজেলার বাসিন্দা রবিউল ইসলাম। তিনি বলেন, বাজারে সবসময় সবজির দাম এক রকম থাকে না। কখনো বাড়ে আবার কখনো কমে। প্রতিকেজি সবজি গড়ে ২৫-৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে বর্তমানে কিছু সবজির দাম বেশি। শিগগিরই সেগুলোর দামও কমে যাবে। নতুন সবজি পুরোদমে সরবরাহ হলেই বাজার স্বাভাবিক হবে।

বগুড়ার সবজি ব্যবসায়ী আব্দুল হামিদ জানান, এ মৌসুমে সবজির আবাদ অনেক ভালো হয়েছে। উত্তরের চাহিদা মিটিয়ে এখানকার সবজি সারাদেশে সরবরাহ করা হয়। তিনি নিজেই কুয়াকাটায় সবজি সরবরাহ করেন।

শুধু এই চার জেলাতেই নয়, উত্তরের  অন্যান্য জেলাগুলোতেও সবজির অনেক ভালো ফলন হয়েছে। জানতে চাইলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মোতালেব হোসেন ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ২৭ হাজার ১৪১ হেক্টর জমিতে শীতকালীন সবজির আবাদ হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ শাহ আলম ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রংপুর, নীলফামারী, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রামে ৪৫ হাজার হেক্টর জমিতে এবার সবজির আবাদ হয়েছে। এরমধ্যে নীলফামারীতে সবচেয়ে বেশি সবজির চাষ করা হয়েছে।