• বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

শেবাচিম হাসপাতালে চালু হলো রক্তের প্লাটিলেট আলাদাকরণ মেশিন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

বরিশাল প্রতিনিধিঃ দক্ষিণাঞ্চলের ডেঙ্গু রোগীদের সুখবর দিলো শের-ই বাংলা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে রক্ত পরিসংঞ্চলন কেন্দ্র। সেখানে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের অত্যান্ত কার্যকারী রক্তের প্লাটিলেট আলাদাকরণ (এফেরেসিস) মেশিন চালু করা হয়েছে।

প্রথম বারের মতো চালু হওয়া ওই মেশিন থেকে জীবন রক্ষার বিশেষ সুবিধা গ্রহণ করেতে পারবে ডেঙ্গু, ক্যান্সার, থেলাসেমিয়া ও আইটিপি আক্রান্ত রোগীরা। ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বেলা ১১টায় এফেরেসিস মেশিনটির কার্যক্রম অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হাসপাতাল পরিচালক ডাঃ এইচ এম সাইফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ইতোপূর্বে এই হাসপাতালসহ দক্ষিণাঞ্চলের কোন হাসপাতালেই রক্তের প্লাটিলেট আলাদাকরণ (এফেরেসিস) মেশিন ছিলো না। ডেঙ্গু, ক্যান্সার, থেলাসেমিয়া ও আইটিপি রোগীদের জন্য অত্যান্ত কার্যকারি রক্ত থেকে রক্তের প্লাটিলেট আলাদা করে গ্রহণের প্রয়োজন হয়। এই মেশিনটির অভাবে এখানকার রোগীদের রাজধানীতে প্রেরণ করা হতো। মেশিনটির কার্যক্রম শুরু হওয়ায় এখন আর কোন রোগীকে রাজধানীতে যেতে হবে না।

তিনি আরও বলেন, অতিসম্প্রতি মেশিনটি সেন্ট্রাল মেডিকেল স্টোর থেকে সরকারিভাবে সরবরাহ করা হয়েছে। হাসপাতালের রক্ত পরিসংঞ্চলন কেন্দ্রে মেশিনটির কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। মেশিনটির সাথে স্বল্প পরিমানের প্লাটিলেট সেপারেশন কিটসও সরবরাহ করা হয়েছে। স্বল্প খরচে মেশিনটি দিয়ে রক্তের প্লাটিলেট আলদা করে তা গ্রহন করতে পারবেন রোগীরা।

রক্ত পরিসংঞ্চলন কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা সিনিয়র মেডিকেল স্টোর অফিসার ডাঃ নূরুন্নবী চৌধুরী তুহিনের সভাপতিত্বে এফেরেসিস মেশির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ ইমরুল কায়েস, সার্জারী বহিঃ বিভাগের আবাসিক সার্জন ও আউটডোর ডাক্তার এসোসিয়েশন’র সভাপতি ডাঃ সৌরভ সুতার, নাক কান গলা বহিঃ বিভাগের আবাসিক সার্জন ডাঃ চিরঞ্জিব সিনহা পলাশ ও ডাঃ মোস্তফা কামাল প্রমুখ। এদিকে সেন্ট্রাল মেডিকেল স্টোর থেকে রক্তের প্লাটিলেট আলাদাকরণ (এফেরেসিস) মেশিন’র পাশাপাশি প্লাটিলেট ইনকিউবেটার মেশিন ও একটি ফ্রিজ সরবরাহ করা হয়েছে।

রক্ত পরিসংঞ্চলন বিভাগের ডাঃ নূরুন্নবী চৌধুরী তুহিন বলেন, শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রক্ত পরিসংঞ্চল কেন্দ্রে এখন বেশ কয়েকটি আধুনিকমানের মেশিন সংযোজন করা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম রক্তের প্লাটিলেট আলাদাকরণ (এফেরেসিস) মেশিন। দীর্ঘ দিন চেস্টারপর এই মেশিনটি আমরা পেয়েছি।

এর সাথে প্লাটিলেট ইনকিউবেটার মেশিনও সরবরাহ করা হয়েছে। এই মেশিনের সাহায্যে এফেরেসিস থেকে পাওয়া রক্ত ৪ থেকে ৫দিন সংরক্ষিত রাখা যাবে। এর পাশাপাশি আমাদের এখানে নতুন একটি ফ্রিজ সরবরাহ করা হয়েছে। এই ফ্রিজে কমপক্ষে ৮৪টি রক্তের ব্যাগ সংরক্ষিত রাখা যাবে।