• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী

সপ্তাহে একদিন শেবাচিম প্রাঙ্গণ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার সিদ্ধান্ত

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩  

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (শেবাচিম) এর পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে গতি ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে।

সম্প্রতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি গত বৃহস্পতিবার শেবাচিম হাসপাতাল পরিদর্শনে আসলে টনক নড়ে সকলের। তার পরিদর্শনের এক দিন পূর্বে চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দৌঁড়ঝাপ শুরু হয়।

হাসপাতালের সর্বত্রই চলে ঘষামাজা ও পরিচ্ছন্নতার কাযক্রম।  মন্ত্রী বৃহস্পতিবার পরিদর্শন ও মতবিনিময় করে চলে যাওয়ার পর এ পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে উদ্যাগ নেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সফরের ৪ দিন পর হাসপাতালের পরিচালক সপ্তাহের প্রতি মঙ্গলবার দিনব্যাপী কর্মচারীদের নিয়ে এ পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করবেন বলে জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার  এ কার্যক্রম শুরুর সময়ে শের-ই বাংলা মেডিকেল এর পরিচালক ডাঃ এইচএম সাইফুল ইসলাম  জানান, হাসপাতালকে পরিচ্ছন্ন রাখতে কোনো আপোষ করবেন না তিনি। এ কার্যক্রমে নিজে উপস্থিত থেকে সপ্তাহে প্রতি মঙ্গলবার তা দেখভাল করবেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালের সর্বত্রই নোংরা পরিবেশের ফলে ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করলেও তাতে কাউকে নজর দিতে দেখা যায় না। মাঝে মধ্যে ভিআইপিরা পরিদর্শনে আসলে লোক দোখানো পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম করা হয়। তবে সপ্তাহে অন্তত একদিন পরিচালকের এ পরিচ্ছন্নতার উদ্যোগ চালু থাকলে রোগীদের দুর্ভোগ কিছুটা হলেও লাঘব হবে।