• রোববার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৯

  • || ২৭ সফর ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ বিরোধী অপপ্রচারের সমুচিত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী ওয়াশিংটন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী ‘জাতিসংঘ অধিবেশনে সক্রিয় অংশগ্রহণ বাংলাদেশের অবস্থান আরও সুদৃঢ় করেছে’ জাতিসংঘে আজ বাংলায় ভাষণ দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু আজ বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস জলবায়ু ইস্যুতে ধনী দেশগুলোর অবদান ‘দুঃখজনক’: প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ সব সময় জনগণের ভোটেই ক্ষমতায় আসে: প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ বিশ্বশান্তি ও মানবমুক্তির দিকদর্শন: আ.লীগ জাতিসংঘে ১৫ আগস্টের কথা স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সহযোগিতা জোরদারে ঢাকা-নমপেন এফটিএ চুক্তিতে সম্মত দেশে বিনিয়োগ বাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল বাইডেনের অভ্যর্থনায় প্রধানমন্ত্রীর যোগদান রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে জাতিসংঘকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করুন: প্রধানমন্ত্রী বাইডেনকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন : জাতিসংঘের বলিষ্ঠ ভূমিকা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী চলমান বৈশ্বিক সংকট নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উদ্বেগ জাতিসংঘে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর আলোকচিত্র প্রদর্শন সাফজয়ী ফুটবলার রূপনা চাকমার জন্য রাঙ্গামাটিতে ঘর নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর নিষেধাজ্ঞা-পাল্টা নিষেধাজ্ঞা বিশ্বজুড়ে গভীরভাবে আঘাত করছে: প্রধানমন্ত্রী

আল্লাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে যে আমলে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৪ আগস্ট ২০২২  

মানুষ আল্লাহর ভালোবাসার সৃষ্টি। মানুষকে পরকালে মুক্তি ও কল্যাণ দিতে মহান আল্লাহ তাআলা অনেক আমলের উপলক্ষ্য দিয়েছেন। যেসব আমল করলে বান্দা সহজে মুক্তি কল্যাণ পাবে। নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এমন একটি ছোট্ট আমলের কথা বলেছেন, যে আমলে আল্লাহর সাক্ষাৎ যেমন নিশ্চিত, তেমনি জান্নাতও সুনিশ্চিত। ছোট্ট আমলটি কী?

আল্লাহ তাআলা মানুষকে বড় মায়া করে ভালোবেসে সৃষ্টি করেছেন। মানুষের কল্যাণে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন অনেক নবি ও রাসুল। পরকালের সীমাহীন জীবনে সুখ ও শান্তির তৈরি করেছেন জান্নাত। বিশেষ ব্যক্তিদের জন্য রেখেছেন মহান প্রভুর সাক্ষাৎ। তাওহিদের স্বীকৃতির ছোট্ট একটি আমলেই এসব নেয়ামতগুলো পাওয়া সম্ভব। নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাদিসে পাকে তা সুস্পষ্টভাবে তুলে ধরেছেন-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ তাআলা ছাড়া কোনো ইলাহ ( ইবাদাতের উপযুক্ত উপাস্য) নেই এবং আমি আল্লাহর রাসুল। যে কোনো বান্দা সন্দেহাতীতভাবে এ বাক্য দুটির ওপর ঈমান আনবে, সে আল্লাহ তাআলার সঙ্গে এমন অবস্থায় সাক্ষাৎ করবে যে, সে জান্নাত থেকে বঞ্চিত হবে না।’ (মুসলিম, নাসাঈ, বাইহাকি)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে এ হাদিসের শিক্ষা গ্রহণ করে তাঁর প্রতি পরিপূর্ণ বিশ্বাস স্থাপন এবং বিশ্বনবিকে সর্বশেষ নবি ও রাসুল হিসেবে স্বীকৃতি দানের মাধ্যমে আল্লাহর সাক্ষাৎ এবং জান্নাত পাওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।