• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী

বিএনপির আমলে রিজার্ভ ছিল সাড়ে ৩ বিলিয়ন ডলার: হানিফ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২২  

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল সাহেব বিভিন্ন স্থানে মিটিংয়ে বলে বসলেন হিসাব শেষ। দেশ শেষ হয়ে গেছে। বাংলাদেশে এই মুহুর্তে রিজার্ভ আছে প্রায় ৩৯ বিলিয়ন ডলার। ব্যাংকের হিসাবেও রয়েছে ২৯ বিলিয়ন ডলার। আর বাকি ডলার বিভিন্ন সংস্থায় আছে।

আমি বিএনপি’র মহাসচিবকে জিজ্ঞাসা করেছি, আপনারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন রিজার্ভ কত ছিল? একটু আমাদেরকে জানান। লজ্জা হওয়া উচিত। এই বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল, তখন মাত্র সাড়ে ৩ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ ছিল। সাড়ে ৩ বিলিয়ন ডলার দিয়ে দেশ শেষ হয়নি। আর এখন ৩৯ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ। তিনি বলছেন, দেশ শেষ হয়ে গেছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে চাঁদপুরের শাহরাস্তি মেহের ডিগ্রী কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বিএনপির গত কয়েকদিনের আন্দোলন সংগ্রামে নাকি দু’একজন কর্মী নাকি মারা গেছে। তিনি এক সমাবেশে চোখের পানি ফেলে বললেন, সরকার নির্যাতন করছে, আমাদের অনেক মানুষকে হত্যা করেছে। আমরা জিজ্ঞেস করি, মির্জা ফখরুল সাহেব ২০০১-২০০৬ সাল পর্যন্ত আপনার এই চোখের পানি কোথায় ছিল। কোথায় ছিল আপনার গণতন্ত্র ও মানবতা।

হানিফ বলেন, ২০০১ সালে আপনারা ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগের লোকজনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অত্যাচার নির্যাতন করেছিলেন। হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে হত্যা করেছিলেন। ২৬ হাজার নেতা-কর্মীকে প্রাণ দিতে হয়েছিল এই বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাসীদের হাতে।    

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চাঁদপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তফা কামাল মজুমদার। উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছিল উদ্দিন আহমেদ।