• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী

উজিরপুরের আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

বরিশালের উজিরপুরের হারতায় আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের চতুর্থ পর্যায়ের নির্মাণাধীন ঘরের কাজ পরিদর্শন করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো.জাহাঙ্গীর হোসেন। ঘরের কাজের নির্মাণ সামগ্রী দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন জেলা প্রশাসক। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের উদ্যোগে ২২ জানুয়ারী বিকেলে উজিরপুর উপজেলার হারতায় গ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মাণাধীন ৫০টি ঘরের কাজ পরিদর্শন করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো.জাহাঙ্গীর হোসেন। এসময় ঘরের কাজের নির্মাণ সামগ্রী দেখে জেলা প্রশাসক সন্তোষ প্রকাশ করেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উজিরপুর উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ৪শত ৪০জন ভুমি ও গৃহহীনদের জন্য সরকারী ঘর বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৩শত ১০টি ঘরের নির্মাণ কাজ শেষ করে ভুমি ও গৃহহীনদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। চতুর্থ পর্যায়ের ১শত ৩০টি ঘরের মধ্যে ৮০শতটি ঘরের নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়। ৫০টি ঘরের জন্য মাটি ভরাট কাজ চলমান রয়েছে। নির্মাণাধীন ঘরের কাজ দেখে জেলা প্রশাসক মো.জাহাঙ্গীর হোসেন সন্তোষ প্রকাশ করে ঠিকাদারকে বিভিন্ন দিক নির্দেশণা দেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারিয়া তানজিন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা অয়ন সাহা, হারতা ইউপি চেয়ারম্যান অমল মল্লিকসহ প্রমুখ।

ঘর দেখে বরিশাল জেলা প্রশাসক মো.জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে এই আশ্রয়ন প্রকল্প। এই প্রকল্পের কাজ ভাল করতে হবে। কাজে কোন অনিয়ম করা যাবে না। অনিয়ম করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করতে হলে সরকারের সকল প্রকল্পের কাজ সঠিক নিয়মে করতে হবে।