• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী

সোনার বাংলার দ্বায়িত্ব মুক্তিযোদ্ধাদেরই নিতে হবে- মন্ত্রী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২২  

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধিঃ সাম্প্রদায়িত শক্তিকে উৎখাত করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলা গড়ার দ্বায়িত্ব মুক্তিযোদ্ধাদেরই নিতে হবে। জাতির পিতা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় যে সংবিধান প্রণয়ন করেছিলেন তা ’৭৫ পরবর্তি সরকারগুলো মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস মুছে ফেলতে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল। ইতিহাস বিকৃতি হিসেবে তারা ‘মহান মুক্তিযুদ্ধকে “গন্ডগোল” আখ্যায়িত করে প্রচারনা চালিয়েছিল। জিয়া সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের ফাঁসিতে ঝুলিয়েছিল। তখন সরকারী চাকুরীতে কোন লোক মুক্তিযোদ্ধার সনদ দিয়ে চাকুরী করতে পারেনি। চাকুরী হারানোর ভয়ে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তাও পরিচয় দেয়নি তারা। বর্তমানে চাকুরী ও শিক্ষা ভর্তিতেও মুক্তিযোদ্ধা কোটা চালু রয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে মুক্তিযোদ্ধারা বিভিন্ন ভাতা প্রাপ্তির পাশাপাশি মাসিক ২০হাজার টাকা সম্মানী ভাতা পাচ্ছেন আর পূর্ববর্তি সরকারের সময়ে সেই ভাতা দেয়া হতো ৩শ টাকা। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী তাই মুক্তিযোদ্ধাদের প্রথম শ্রেণির নাগরিক হিসেবে গণ্য করে তাদের জন্য সকল ধরনের সাহায্য সহযোগীতা আর সম্মান অব্যাহত রেখেছেন।

তাই অ-সাম্প্রদায়িক দেশ গঠনে শেখ হাসিনার সরকারকে পুনারায় ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি আহ্বান জানান অনুষ্টানের প্রধান অতিথি জাতির পিতার ভাগ্নে, মন্ত্রী মর্যাদায় পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরীবিক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক, দক্ষিণাঞ্চলীয় মুজিব বাহিনীর প্রধান আলহাজ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ (এমপি)। বরিশালের আগৈলঝাড়ায় উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার শহীদ সুকান্ত আবদুল্লাহ অডিটোরিয়মে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার মো. সাখাওয়াত হোসেনের সভাপতিত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ডিজিটাল সনদপত্র ও স্মার্ট কার্ড বিতরণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন- আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই পদ্মা সেতুসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলের অবহেলিত মানুষের ভাগ্যরে উন্নয়ন ঘটেছে। তাই এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দক্ষিণাঞ্চল বাসীকে ঐক্যবদ্ধ থাকারও আহ্বান জানান তিনি।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার সুশান্ত বালার সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে এসময় আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রইচ সেরনিয়াবাত, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ মো. লিটন, গৌরনদী পৌর মেয়র হারিছুর রহমান হারিছ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুর রহমান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আও উপস্থিত ছিলেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগ নেতা সেরনিয়াবাত আশিক আবদুল্লাহ, মন্ত্রীর একান্ত সচিব খায়রুল বাশার, গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী, আগৈলঝাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুনীল কুমার বাড়ৈ, উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগনসহ আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা।

পরে প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিরা কৃষক কুলের নয়নমনি, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সাবেক মন্ত্রী আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের ছোট নাতি, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য সেরনিয়াবাত আশিক আবদুল্লাহ’র হাতে ডিজিটাল সনদপত্র প্রদানের মধ্য দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সনদপত্র এবং স্মার্ট কার্ড বিতরণের শুভ উদ্বোধন করেন। উপজেলায় ৫৬৪জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ডিজিটাল সনদপত্র এবং ও স্মার্ট কার্ড পাবেন।