• সোমবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১০ ১৪২৮

  • || ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
করোনায় ভয়াবহ কিছু হবে না: অর্থমন্ত্রী শহীদ আসাদ গণতন্ত্রপ্রেমী মানুষের মাঝে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন গণতন্ত্রের ইতিহাসে শহীদ আসাদ দিবস একটি অবিস্মরণীয় দিন শহীদ আসাদ দিবস আজ ‘বাংলাদেশকে আর কেউ অবহেলা করতে পারবে না’ সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত এলে চুপ থাকবে না বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী করোনা: ১২ জেলাকে উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি গড়তে ডিসিদের প্রতি নির্দেশ ভয়-লোভের ঊর্ধ্বে থাকুন, ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর ২৪ দফা নির্দেশনা ‘শহিদ ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ভিক্ষা করবে আমি দেখতে চাই না’ ওমিক্রনে মৃত্যু বাড়ছে, সচেতন থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সেবা নিতে এসে মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন: প্রধানমন্ত্রী তৃণমূলের মানুষের জীবনমান উন্নত করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ইসির সক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাব আওয়ামী লীগের সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠনে গুরুত্ব আরোপ রাষ্ট্রপতির ইসি গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন মন্ত্রিসভায় জঙ্গিবাদ নির্মূলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিকেলে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আ’লীগের সংলাপ নৌকায় ভোট দিয়েই রংপুর মঙ্গামুক্ত: প্রধানমন্ত্রী

উজিরপুরে ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে জরিমানা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৩ ডিসেম্বর ২০২১  

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের উদ্যেগে অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হয়েছে। আইন-শৃংখলা বাহিনীর সহায়তার আজ সোমবার সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জেলা ভোক্তা অধিকার আইনে অভিযান পরিচালনা করেন বরিশাল জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সুমি রানী মিত্র ও মো.শাহ শোয়াইব মিয়া।

উপজেলা সদরের বাজারে হালিমের মুদীর দোকানে মেয়াদ উত্তীর্ন জিনিসপত্র পাওয়ায় ৪হাজার টাকা, অনিল দাসের মুদীর দোকানে মুল্য তালিকা না থাকায় ৩হাজার টাকা, এচহাক মিয়ার অষুদের ফার্মেসীতে মেয়াদ উত্তীর্ন ওষুধ পাওয়ায় ৫হাজার টাকাসহ ৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ২০হাজার ৫শত টাকা জরিমানা করেন জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

এসময় ভ্রাম্যমান অভিযানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সেনেটারী ইন্সপেক্টর মো.নুর আলম বখতিয়ার। এব্যাপারে বরিশাল জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো.শাহ শোয়াইব মিয়া বলেন, আমরা প্রতিদিনই বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে থাকি। যে সব দোকানে মেয়াদ উত্তীর্ন ওষুধ ও নিত্যপন্যের জিনিস পত্র পাওয়া যায় সেই সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিককে জরিমানা করা হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের সচেতন করার জন্য এই অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। বর্তমানে অভিযানে ফলে ব্যবসায়ী ও সাধারন লোকজনের মাঝে কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে।