• বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৬

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

৩০ বছরের পর যে ভুল করবেন না

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০২৩  

বয়সের সঙ্গে মানুষের জীবনেও আসে নতুন নতুন মোড়। বিশেষ করে ৩০ বছরের পর যেন সবাই একটু বিবেচক হয়ে ওঠেন। জীবন নিয়ে আরও বাস্তববাদী ও দায়িত্ববোধ এসে পড়ে কাঁধে।

সব মিলিয়ে এই বয়সের পর নারী-পুরুষ উভয়ই জীবন নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করেন। ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে অনেকেই কর্মক্ষেত্রে অত্যধিক চাপ নেন।

আবার এই বয়সের পরে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যাও ফুটে ওঠে। তাই বয়স ৩০ হতেই নিজের শারীরক ও মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি সবারই যত্নশীল হওয়া জরুরি। বয়স ৩০ পার হতেই কয়েকটি কাজ আছে যা করা উচিত নয় কারো, চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় না করা

বয়স ৩০ এর কোঠায় যেতেই সঞ্চয়ে মনোযোগী হতে হবে। দিও যত কম বয়স থেকে সঞ্চয় শুরু করা যায়, ততই ভালো। এতে হঠাৎ করে বড় কোনো বিপদ, রোগব্যাধি কিংবা সমস্যা দেখা দিলে সামলে নেওয়া সহজ হবে।

স্বাস্থ্যের খেয়াল না রাখা

এই বয়সে গিয়ে শালীরিক বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের অভ্যাস করতে হবে। যেহেতু এখন বেশিরভাগ মানুষই কর্মক্ষেত্রে সারাদিন বসে ম্পিউটারে চোখ রেখে দিন, তাই কায়িক পরিশ্রম অনেকটা কমে যায়।

আর এ কারণে শরীরে রোগবালাই বাসা বাঁধার সুযোগও বেড়ে যায়। যে কারণে কোনো অসুস্থতাকেই হেলাফেলার চোখে দেখবেন না। ছোটখাটো রোগবালাই বয়সের সঙ্গে পরিণত হতে পারে বড় কিছুতে। যে কারণে নিজের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখুন।

অত্যধিক দায়িত্ব নেওয়া

বয়স বাড়লে পরিবার, সংসার, কর্মস্থানসহ সবখানেই বাড়ে দায়িত্ববোধ। ফলে অনেকে নিজের কথাই ভুলেই যান। তাই যতই চাপ থাকুক না কেন, মাঝেমধ্যে বিরতি নেওয়া উচিত সবারই।

বন্ধুদের সময় না দেওয়া

বয়স বাড়লে নানা কাজের ব্যস্ততায় বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিতে পারেন না অনেকেই। আবার বয়সের সঙ্গে সঙ্গে বন্ধুদের মধ্যেও আসে পরিবর্তন। এত কিছুর মধ্যেও চেষ্টা করুন বন্ধুদের জন্য আলাদা করে সময় বের করার। তাহলে ভালো থাকবে মন।

নতুন কিছু না শেখা

বয়স বাড়তেই অনেকে নিজের শখ-আহ্লাদগুলো দমিয়ে রাখেন। নতুন কিছু শেখার আগ্রহও কমে যায়। ফলে হতাশা চেপে বসে মনে। বয়স যতই বাড়ুক না কেন, নতুন কিছু করতে বা শিখতে কখনই পিছপা হবেন না।

মনে রাখতে হবে, আধুনিক সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নতুন কিছু শেখা আপনাকে সবার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে সাহায্য করবে।

অন্যের সঙ্গে নিজের তুলনা করা

বয়স ৩০ এর কোঠায় যেতেই প্রত্যেকে নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে সচেতন হয়ে ওঠেন। এ সময় অনেকেই হয়তো তার আশপাশের মানুষের ক্যারিয়ার দেখে ঈর্ষান্বিত বোধ করেন। যা আপনাকে আরও দুর্বল করে তুলবে।

মনে রাখবেন, সবার চলার পথ এক নয় প্রত্যেকের জীবনযাত্রা আলাদা। অন্যের সঙ্গে তুলনা করে নিজের লক্ষ্য থেকে মনোযোগ হারিয়ে ফেলবেন না।