• বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৬

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

স্ক্রিনটাইম কমাবেন যেভাবে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কাজের অপরিহার্য অংশ ফোন কিংবা ডেস্কটপ। আর দিনের একটা বড় সময় এসব স্ক্রিনের দিকে তাকিয়েই পার হয়ে যায়। এতে আমাদের মস্তিষ্ক বিরূপ প্রভাব পড়ে। এর সঙ্গে সঙ্গে চোখেরও নানা সমস্যা দেখা দেয়। ডিজিটাল যুগে আপনি কাজের জন্য যেমন স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকেন, একই ভাবে আপনাকে মাথায় রাখতে হবে শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের কথা। তাই চলুন জেনে নিই কীভাবে স্ক্রিনটাইম কমাবেন তার উপায়-

আপনার স্ক্রিনটাইম ট্র্যাক করুন
করোনাকালে অনেকেই বাড়ি থেকে কাজ করেছেন। সে সময় বাড়ি থেকে বাইরে বের না হওয়ায় ভ্রমণ কম করেছেন, বেশি খাবার খাননি এবং নিজেকে ব্যস্ত রাখতে প্রায়শই মোবাইল কিংবা ডেস্কটপের স্ক্রিনে ঘুরেছেন। তবে বর্তমন পরিস্থিতি যেহেতু ভালো আছে, তাই  এখনই সময় আপনি নিজের স্ক্রিনটাইম ট্র্যাক করুন এবং যতটা সম্ভব সময় কমিয়ে আনুন।
 
ফোনের ক্ষেত্রে এখন স্ক্রিন টাইম অপশন রয়েছে যা আপনাকে আপনার দৈনিক এবং সাপ্তাহিক স্ক্রিন ব্যবহারের সময় আপনাকে জানাবে। যেমন- সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপগুলো ব্যবহারের সময়সীমা আপনি নিজে সেট করতে পারবেন। আর এ সময় শেষ হলেই আপনাকে নোটিফিকেশন পাঠানো হবে আপনার সময় শেষ হয়েছে।

অযথা ভিডিও থেকে দূরে থাকুন
দীর্ঘ সময় ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে সময় কাটানো আমাদের জন্য অস্বস্তিকর হতে পারে। এক সময়ে আমরা ক্লান্ত অনুভব করি। আপনি যদি ভিডিও কল বা ভার্চুয়াল মিটিংয়ে অনেক সময় ব্যয় করেন তবে আপনি মিটিং বা জুম ক্লান্তি বিকাশ করতে পারেন। এ কারণে ভিডিও কলে আপনি যে পরিমাণ সময় ব্যয় করেন তা প্রয়োজনের মধ্যে সীমাবদ্ধ করার চেষ্টা করুন বা ভিডিও কলের মধ্যে সময় নির্ধারণ করুন।
 
স্ক্রিনটাইম কমাতে প্রযুক্তির ব্যবহার
আপনি আপনার স্ক্রিনটাইম কমাতে প্রযুক্তির ব্যবহার করুন। প্রয়োজনে অ্যালার্ম সেট করতে পারেন। আপনার ফোন বা ক্যালেন্ডার সিস্টেম ব্যবহার করুন যা আপনাকে বিরতি নিতে স্মরণ করিয়ে দেয়। এ ছাড়া সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে বিজ্ঞপ্তিগুলো বন্ধ করুন৷ এতে আপনার স্ক্রিনটাইম কিছুটা কমানো সম্ভব।
 
নিয়মিত বিরতি নিন
আপনি যদি স্ক্রিনের সামনে কাজ করেন তবে নিশ্চিত করুন যে আপনি বিরতি নিয়েছেন এবং কমপক্ষে প্রতি ৩০ মিনিটে একটি বিরতি নেয়ার চেষ্টা করুন। এ সময় আপনি দাঁড়ান, চারপাশে একটু হাটুন। এতে আপনার কিছু বিরতি নেয়া হয়ে যাবে।
 
কম বসে দাঁড়ানোর চেষ্টা করুন
আপনি যদি সারাদিন বসে কাজ করেন তাহলে আপনার জন্য এটি ক্ষতি ডেকে আনছে। চেষ্টা করুন কম বসে কাজ করতে। আর আপনার ডেস্ক স্ট্যান্ডিং হলে তা সামঞ্জস্যযোগ্য ডেস্ক, যা আপনাকে কাজ করার সময় দাঁড়াতে দেয়। বর্তমানে এসব ডেস্ক জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কেননা দাঁড়ানো আপনার ওজন বৃদ্ধি এবং স্থূলতার ঝুঁকি কমায়। মনে রাখবেন, আপনি যত কম ঘণ্টা বসে কাটাবেন, তত ভালো থাকবেন।
 
স্ক্রিনের পর্দার সামনে খাবেন না
চেষ্টা করুন টিভি দেখতে দেখতে কিংবা গেম খেলতে খেলতে কাবার না খাওয়ার। স্ক্রিনটাইম কমাতে খাবারের সময় নির্ধারণ করুন। আর সে সময় অন্য কিছু না করার চেষ্টা করুন।
 
শোবার ঘরের বাইরে পর্দা রাখুন
ঘুমানোর ঠিক আগে এক ঘণ্টার মধ্যে যেকোনো ধরনের ব্যাকলিট স্ক্রিন ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন। কারণ এগুলো আলো নির্গত করে যা আপনার ঘুমের গুণমানকে ব্যাহত করতে পারে। যদি সম্ভব হয় টিভি, ডেস্কটপ বেডরুমের বাইরে রাখুন।

অফলাইন কাজগুলো অনুসরণ করুন
আমরা জানি আমাদের স্ক্রিন থেকে বিরতি নেয়া কঠিন, তবে অফলাইনে কিছু করলে সেই সময়টা আমাদের চোখ বিশ্রাম পাবে।

 

ফোনে না পড়ে বই পড়ুন
আপনার ফোনে পড়া আপনার চোখকে চাপ দিতে পারে। তাই চেষ্টা করুন ফোনে না পড়ে বই পড়েতে। স্ক্রিন ব্যবহার করার সময়, লোকেরা কম ব্লিঙ্ক করে, এবং দুর্বল কোণে স্ক্রীন দেখতে থাকে। স্ক্রিনগুলি নীল আলোও নির্গত করে, যা আপনার চোখকে চাপ দিতে পারে এবং ঘুমকে প্রভাবিত করতে পারে। আপনার চোখ একটি বিরতি দিন, মুদ্রিত বই বেছে নিন কারণ এগুলো কম্পিউটার ভিশন সিন্ড্রোম (কম্পিউটার ব্যবহারের কারণে চোখের সমস্যা) সৃষ্টি করে না।
 
কম ছবি তুলুন
আমরা অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করতে পছন্দ করি। আর এই ছবি পোস্ট করার জন্য অনেক বেমি ছবি তুলে থাকি। এতে অনেক বেশি সময় ব্যয় হয় আমাদের স্ক্রিনে। আবার সেই ছবি যখন আপলোড দিতে যাই , তখন আবার বাছাই করতে অনেক বেশি সময় ব্যয় হচ্ছে। এতে করে ফোনে প্রচুর স্ক্রিনটাইম ব্যয় হয়। তাই ছবি কম তুলে আমরা স্ক্রিনটাইম কমাতে পারি।