• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৬ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীকে বরণে প্রস্তুত রাজশাহী প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল চাবিকাঠি ডিজিটাল সংযোগ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র

বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ সচল হয়েছে খেরসনে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

গত সপ্তাহে ইউক্রেনের জ্বালানি ও বিদ্যুৎ অবকাঠামো লক্ষ্য করে একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রুশ সেনারা। হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় জরুরি সেবা সরবরাহ করা সংস্থাগুলো।
বিদ্যুৎহীন হয়ে পরে বেশি কিছু অঞ্চল। এগুলোর মধ্যে খেরসন শহরের বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ অনেকাংশে পুনরুদ্ধার করা হয়েছে।

দক্ষিণ ইউক্রেনের সম্প্রতি মুক্ত করা শহর খেরসনের কর্মকর্তারা বলছেন, রাশিয়ার হামলায় অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর দুটি গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবা অনেকাংশে পুনরুদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয় কর্মকর্তাদের মতে, খেরসন শহরের বিদ্যুৎ সরবরাহ ৮৫ শতাংশ ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

প্রথমে শুক্রবার মোটামুটি তিন-চতুর্থাংশ বিদ্যুৎ ব্যবস্থা পুনরুদ্ধার করা হয়। কিন্তু পরে রাশিয়ান গোলাগুলির কারণে শহরটি আবারও সম্পূর্ণরূপে বিদ্যুৎ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল।

এরপর শনিবারের মধ্যে, শহরে ৭৫ শতাংশ বিদ্যুৎ পুনরুদ্ধার করা হয়েছিল। যা বর্তমানে আরও উন্নতির দিকে আছে।

এছাড়া, শহরের ৭০ শতাংশ বাসিন্দাদের বাড়িতে পানি সরবরাহ ব্যবস্থা সচল করা হয়েছে।