• বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ২ ১৪৩১

  • || ০৯ মুহররম ১৪৪৬

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী চীন সফর সংক্ষিপ্ত করে আজ দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী ঢাকা-বেইজিং ৭ ঘোষণাপত্র, ২১ চুক্তি সই চীনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে শেখ হাসিনা

চলমান সিরিয়া যুদ্ধে ২৯ হাজার শিশুকে হত্যা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০১৯  

সিরিয়ায় ২০১১ সালের মার্চ মাস থেকে চলমান যুদ্ধে এ পর্যন্ত ২৯ হাজারেরও বেশি শিশু হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। হত্যার শিকার হওয়া ৮৫ ভাগ শিশুই সরকারি বাহিনী ও তাদের মিত্র বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছে।

সিরিয়ান নেটওয়ার্ক ফর হিউমান রাইট নামক মানবাধিকার সংগঠন গত বুধবার আন্তর্জাতিক শিশু দিবস উপলক্ষে এ তথ্য প্রকাশ করেছে। খবর আল জাজিরা, আরব নিউজ’র।

হামলার নির্মম নিশানায় পরিণত হয় নিষ্পাপ শিশুরা। হামলা থেকে বাদ যায়নি স্কুল, হাসপাতাল, আশ্রয়কেন্দ্রর বন্দিশালাও। ক্ষমতার এ দ্বন্দ্বে বাদ যায়নি কোন স্থাপনার ধ্বংস। বাদ যায়নি নিষ্পাপ প্রাণ। 
এ বিশাল সংখ্যাক শিশু হত্যার জন্য সিরিয়ান সরকার ও তাদের মিত্র বাহিনী বিভিন্ন স্কুলে ১ হাজার ১ শত ৪২টি হামলা চালায়। 

ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়, সিরিয়ান বাহিনীর হাতে ২২,৭৫৩ জন শিশু প্রাণ হারায় যাদের মধ্যে ১৮৬ জনকে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে হত্যা করা হয়। ৪০৪ জন শিশুকে ক্লাস্টর বোমা ব্যবহার করে হত্যা করা হয়। চিকিৎসা ও খাদ্যের অভাবে ৩০৫ জন শিশু মারা যায়। 

দেশটিতে ২০১৫ সালে রাশিয়ার বাহিনীর হামলায় ১,৯২৮ শিশু হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়। এ সময় তারা বিভিন্ন স্কুলকে লক্ষ্য করে ২০১টি হামলা চালিয়েছে। হামলা থেকে বাঁচতে প্রায় ১০ হাজার শিশু তাদের শিক্ষালয় ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়। 

একই বছর সিরিয়ান বিদ্রোহি বাহিনীর হাতে ২১৪ শিশু নিহত এবং আটক হয় ৭২২ শিশু। ২০১৩ সাল থেকে আইএসআই’র হামলায় ৯৫৬ শিশু প্রাণ হারায় এবং আটক হয় ৩২৬ শিশু। তারাও শিক্ষালয় লক্ষ্য করে ২৫টি হামলা চালিয়েছে। জাতিসংঘের শিশু অধিকার বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ শিশুদের রক্ষায় আহবান জানিয়েছে বলে এ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।