• শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৬ ১৪২৯

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে করোনায় প্রবীণদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুর্গাপূজা এখন সার্বজনীন উৎসব: প্রধানমন্ত্রী মৌলবাদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনাই একমাত্র ভরসা: ইন্ডিয়া টুডে যুক্তরাষ্ট্র কী করে বঙ্গবন্ধুর খুনিকে আশ্রয় দিয়েছে সৌদি যুবরাজকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন আয়োজনে শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপিত নভেম্বরে জাপান সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ‘রোহিঙ্গাদের অবশ্যই ফিরে যেতে হবে’ ‘সব কথা বলার পর কেউ যদি বলে আমাকে কথা বলতে দিল না, তার কি জবাব!’ উন্নয়ন যাত্রার অনন্য সারথি শেখ হাসিনা শত প্রাপ্তিতেও যার তৃপ্তি কেবল মানুষের ভালোবাসাতেই ‘সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার নবতর সংগ্রামের কাণ্ডারি শেখ হাসিনা’ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ হাজার চারা রোপণ করবে আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনা: এক মানবিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অনুসরণীয় ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রকাশ হলো ‘বাংলাদেশের নেতা’ (ভিডিও) শান্তি ও উন্নয়নের অগ্রদূত শেখ হাসিনা ‘শেখ হাসিনা শুধু দেশেই নন, বহির্বিশ্বেও অন্যতম সেরা রাষ্ট্রনায়ক’ দক্ষ হাসিনায় নির্ভার বাংলাদেশ

করোনামুক্ত হওয়ার দু’বছর পরও কিছু লক্ষণ থাকতে পারে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২২  

করোনামুক্ত মানেই যে আপনি সম্পূর্ণ সুস্থ, এমনটা নয়। টেস্টে নেগেটিভ আসা মানে আরেক লড়াইয়ের পর্ব শুরু। করোনা থেকে সেরে ওঠার পর শরীরে অনেক ধরনের জটিলতা থেকে যেতে পারে। কিছু উপসর্গ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ঠিক হয়ে যায়। আর কিছু উপসর্গ থাকতে পারে দু’বছর পর্যন্ত।

করোনা সংক্রমণ বর্তমানে কিছুটা হলেও হ্রাস পেয়েছে। ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে জনজীবন। বাড়ি থেকে কাজ, অনলাইন পড়াশোনার বদলে অফলাইনে চালু হয়ে হয়েছে সব। তবে বছরখানেক আগের ছবিটা এমন ছিল না। করোনা কোপে তখন সবাই বিপর্যস্ত। পরপর তিন বার করোনা স্ফীতি পেরিয়ে এসে এখন একটু হলেও কমেছে সংক্রমণ।

তবে ল্যানসেটের গবেষণা বলছে, করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরও প্রায় দু’বছরের মতো রোগীদের মধ্যে করোনার লক্ষণ থেকে যেতে পারে।

মূলত চীনে পূর্বে আক্রান্ত কোভিড রোগীদের মধ্যে এই গবেষণাটি চালানো হয়েছিল। বিশেষ করে যারা দীর্ঘদিন কোভিডে ভুগছেন, তাদের মধ্যে করোনা পরবর্তী সময়েও বিভিন্ন শারীরিক লক্ষণ দেখা দিচ্ছে। এমনকি, করোনা টিকা নেওয়া থাকলেও এই ধরনের লক্ষণগুলো দেখা দিতে পারে।

এর অন্যতম কারণ মূলত কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠার পর সঠিক ভাবে শরীরের যত্ন না নেওয়া। পুষ্টিকর খাবার না খাওয়া, অস্বাস্থ্যকর জীবনযাবন করা। এর ফলে বছর খানেক আগে কোভিড মুক্ত হওয়া ব্যক্তিরাও ক্লান্তি, দুশ্চিন্তা, অনিদ্রার মতো উপসর্গে ভুগছেন।

গবেষণা বলছে, করোনা আক্রান্ত হওয়ার ছ’মাস পরে প্রায় ৬৮ শতাংশ করোনা আক্রান্তদের মধ্যে লং কোভিডের উপসর্গ দেখা দিয়েছে। ক্লান্তি, দুশ্চিন্তা ছাড়াও গাঁটে ব্যথা, পেশির দুর্বলতা, মানসিক উদ্বেগ, গ্যাসের সমস্যা সেই তালিকায় পড়ে। সংক্রমিত হওয়ার দু’বছর পর কোভিডের বেশির ভাগ উপসর্গ অত সক্রিয় না থাকলেও কিছু কিছু লক্ষণ থেকে যাচ্ছে।