• রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
অন্যের কাছে আমরা হাত পাতবো না: প্রধানমন্ত্রী এখন কেউ আর কুঁড়েঘরে বাস করে না: প্রধানমন্ত্রী এখন আর হাওয়া ভবনে ‘পাওয়া’ দিতে হয় না- প্রধানমন্ত্রী ইংল্যান্ড বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে দেড়শ শতাংশ, মনে রাখতে হবে বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করতে সরকার কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী ক্রয়মূল্য দিলে সবক্ষেত্রে গ্যাস-বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব লাইব্রেরিতে পড়াশোনার পরিবেশ তৈরিতে মনোযোগী হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বই মানুষের জ্ঞানের পরিধি বাড়ায়: রাষ্ট্রপতি সবাইকে আইনানুযায়ী রাজস্ব প্রদানের আহ্বান রাষ্ট্রপতির রাজস্ব আদায় বাড়াতে আরও উদ্যমী হোন, এনবিআরকে প্রধানমন্ত্রী সমৃদ্ধ রাজস্ব ভাণ্ডার গড়ে তোলার ওপর প্রাধান্য দিচ্ছে সরকার মার্চে কাতার যাবেন প্রধানমন্ত্রী, সেপ্টেম্বরে ভারত সফরের সম্ভাবনা অপ্রতিরোধ্য অগ্রগতি কেউ রুখতে পারবে না জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী

পথশিশুদের জন্মনিবন্ধনে মা-বাবার তথ্য লাগবে না

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০২২  

মা ও বাবার পরিচয় না থাকলেও জন্মনিবন্ধন সনদ পাবে পথশিশুরা। এ নিয়ে সফটওয়্যারে যে জটিলতা ছিল, তা গত ২৬ জুলাই নিরসন করা হয়েছে। রোববার স্থানীয় সরকার বিভাগের (জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন) পক্ষে হাইকোর্টে দাখিল করা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে ৩০ জুন সারা দেশের ১৬ লাখ পথশিশুকে জন্মনিবন্ধন সনদ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এ ছাড়া সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্মনিবন্ধনের ব্যবস্থা নিতে সরকারের পক্ষ থেকে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, তাও অগ্রগতি প্রতিবেদন আকারে তিন মাসের মধ্যে হাইকোর্টে দাখিল করতে বিবাদীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি খিজির হায়াত সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল জারিসহ এই আদেশ দেন। এরই ধারাবাহিকতায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার জেনারেল সামিউল ইসলাম রাহাদ হাইকোর্টে এ প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পথশিশুদের নিবন্ধনের ক্ষেত্রে সফটওয়্যারে সাময়িক জটিলতা দেখা দিয়েছিল। অর্থাৎ কোনো ব্যক্তির জন্মনিবন্ধনকালে বার্থ অ্যান্ড ডেথ রেজিস্ট্রেশন ইনফরমেশন সফটওয়্যার (বিডিআরআইএস) হতে ২০০১ সালের ১ জানুয়ারির পরে জন্ম নেওয়া সবার নিবন্ধনের ক্ষেত্রে মা-বাবার জন্মনিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র বাধ্যবাধকতা ছিল।

গত ২৬ জুলাই বর্তমান বিডিআরআইএস সফটওয়্যারের সেটিংসে এটি প্রত্যাহার করা হয়েছে। এই বাধ্যবাধকতা তুলে দেওয়ার পর থেকে গত ২১ নভেম্বর পর্যন্ত মা-বাবার জন্মনিবন্ধন তথ্য ছাড়াই ৩৪ লাখ ৫৬ হাজার ৭৫৭টি জন্মসনদ তৈরি হয়েছে।

গত ১২ জুন রাজধানীর দুই লাখসহ সারা দেশের ১৬ লাখ পথশিশুকে জন্মনিবন্ধন সনদ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট হয়। স্পোর্টস ফর হোপ অ্যান্ড ইনডিপেনডেন্ট সংগঠনের পক্ষে ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল রিটটি করেন। রিটে এ সংক্রান্ত বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করা হয়।