• সোমবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৮

  • || ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে ‘ঢাকা শান্তি ঘোষণা’ গৃহীত শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়তে সম্পদ ব্যবহার করুন: প্রধানমন্ত্রী যত্রতত্র শিল্প প্রতিষ্ঠান করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প গড়ে তোলার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর দেশবাসীকে শপথ করানোর প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা উপকূলীয় এলাকার ৫৩ শতাংশ জমি সরাসরি লবণাক্ততায় আক্রান্ত বস্ত্রশিল্প বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম চালিকা শক্তি: রাষ্ট্রপতি বস্ত্রখাত অর্থনীতির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হিসেবে ভূমিকা রেখে চলছে প্রশিক্ষিত সামরিক বাহিনী গঠনে বিভিন্ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছি বাংলাদেশ আর পিছিয়ে যাবেনা, এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সদাপ্রস্তুত পার্বত্য শান্তিচুক্তির ফলে দীর্ঘদিনের সংঘাতের অবসান ঘটে পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিশ্বের ইতিহাসে বিরল ঘটনা: প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের দেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ২৪ বছরে পার্বত্য শান্তি চুক্তি করোনা বাড়লে আবারও বন্ধ হবে স্কুল: প্রধানমন্ত্রী গাড়ি না ভেঙে ছাত্রদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরতে বললেন প্রধানমন্ত্রী আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না: প্রধানমন্ত্রী গাড়ি ভাঙচুর-আগুন দিলেই ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী

বেসরকারি খাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২১  

সরকারের সঙ্গে সঙ্গে বেসরকারি খাতেও উদ্যোক্তা তৈরি না হলে দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর দাঁড়ায় না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট সামিট ২০২১-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সরকার গঠনের পর থেকে বেসরকারি খাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। বেসরকারি খাতকে অনেক ক্ষেত্রে উন্মুক্ত করে দিয়েছি। বেসরকারি খাতে বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ, গ্যাস, বিমান, ব্যাংক, বীমা, শিল্প-কলকারখানাসহ সব ক্ষেত্র উন্মুক্ত করে দিয়েছি। কারণ সরকারের সঙ্গে সঙ্গে বেসরকারি খাতেও যদি উদ্যোক্তা তৈরি না হয়, তাহলে দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর দাঁড়ায় না।

তিনি বলেন, রপ্তানিও বাড়িয়েছি আমরা এসে। এ সংক্রান্ত আইনও করেছি। শ্রম আইনও সংশোধন করি। শিল্পায়নের পাশাপাশি শ্রমিকের অধিকারও সুরক্ষিত থাকবে। তরুণ ও নারীদের ট্রেনিং দিয়ে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলার ব্যবস্থা করছি।

শেখ হাসিনা বলেন, বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ উন্নয়নের জন্য আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। শিল্প উন্নয়নে পরিবেশ সৃষ্টির পাশাপাশি বিশেষ অর্থনৈতকি অঞ্চল করে দিয়েছি। এই ১০০ অঞ্চলে দেশি-বিদেশী বিনিয়োগের সুযোগ আছে।