• শনিবার ২০ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

  • || ১২ মুহররম ১৪৪৬

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ বাজেটের ৮৭ শতাংশের বেশি বাস্তবায়ন করলেও বিএনপি করেছে মাত্র ৭০ শতাংশ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২৪  

বিএনপি তাদের প্রস্তাবিত বাজেটের ৭০ শতাংশ বাস্তবায়ন করেছে এবং আওয়ামী লীগ তাদের গত ১৫ বছরের শাসনামলে প্রস্তাবিত বাজেটের ৮৭ শতাংশেরও বেশি বাস্তবায়ন করছে।জাতীয় সংসদে আজ ২০২৪-২৫ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সরকারি দল ও স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যরা এ কথা বলেন।

চলমান ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ এবং হামাস-ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত এর কারণে বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে ৬ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য ৭,৯৭,০০০ কোটি টাকার জাতীয় বাজেট উপস্থাপন করেন।
আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের হুইপ সাইমুম সারওয়ার কামাল বলেন, ‘২০০১ সালে ক্ষমতায় আসার পর ২০০২ সালে বিএনপি ৪৪ হাজার ৮৫৪ কোটি টাকার বাজেট দেয় এবং তাদের শেষ বাজেট ছিল ৬১ হাজার কোটি টাকা। বিএনপি তাদের ৫ বছরের মেয়াদে প্রতি বছর মাত্র ৪ হাজার কোটি টাকা বৃদ্ধি করেছে। অন্যদিকে, আওয়ামী লীগ তার বাজেটের সূচনা করেছিল ৪,০০,২৬৬ কোটি টাকা দিয়ে, এটি ছিল ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৪,৬৪,৫৭৩ কোটি টাকা, ২০২৩-২৪ অর্থবছরে ৭,৬১,৭৮৪ কোটি টাকা এবং আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরে ৭,৯৭,০০০ কোটি টাকা। এই হিসাবে গত ৫ বছরে বাজেট বার্ষিক ৭০,০০০ কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে।’
তিনি বলেন, বিএনপির ৫ বছরে বাজেট বাস্তবায়নের হার ছিল মাত্র ৭০ শতাংশ, যেখানে আওয়ামী লীগের গত পাঁচ বছরে তা ছিল ৮৭ শতাংশের বেশি।
সরকারি দলের সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।’

প্রস্তাবিত বাজেটের সমালোচনা করে জাতীয় পার্টির সদস্য মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ১৫ শতাংশ কর দিয়ে অপ্রদর্শিত অর্থ বৈধ করার বিধান প্রকৃত করদাতাদের নিরুৎসাহিত করবে। প্রস্তাবিত বাজেটকে ল্যান্ডমার্ক হিসেবে উল্লেখ করে সরকারি দলের সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘প্রস্তাবিত বাজেটে জনগণের বৃহত্তর সুবিধার জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধি রোধে জোর দেয়া হয়েছে।’আলোচনায় অংশ নিয়ে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আব্দুল কাদের আজাদ বলেন, প্রকৃত করদাতারা ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ট্যাক্স দিচ্ছেন। কেন কালো টাকার মালিক তাদের টাকা বৈধ করতে ১৫ শতাংশ ট্যাক্স দিবেন।
আলোচনায় আরও অংশ নেন সরকারি দলের সদস্য মেহের আফরোজ, জাতীয় পার্টির সদস্য একেএম মুস্তাফিজুর রহমান, স্বতন্ত্র সদস্য মো. সোহরাব উদ্দিন, জয়া সেন গুপ্তা, মো. সিদ্দিকুল আলম।

এর আগে তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধ এবং পরবর্তী সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা সর্বাত্মক ত্যাগ স্বীকার করেছেন তাদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।