মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৭ ১৪২৬   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
দুটি বড় ধরনের ঘূর্নিঝড় মোকাবেলা করতে হলো সাদিক আবদুল্লাহকে সংসদে বাংলাদেশের পতাকবাহী জাহাজ (সুরক্ষা) বিলের রিপোর্ট উপস্থাপন মডেল ফার্মেসী উদ্বোধন করেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মুজিব বর্ষ উদযাপনে ভারতের আগ্রহ রয়েছে: রাম মাধব বাংলা বন্ড চালু বিশ্ব অথনীতিতে একটি বড় পদক্ষেপ:অর্থমন্ত্রী ইন্দো-প্যাসিফিক সহযোগিতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব আরোপ মোমেনের ২০২০ সালের হজ নিয়ে সৌদির সাথে বাংলাদেশের চুক্তি ১ ডিসেম্বর সম্প্রচারের অপেক্ষায় ১১টি বেসরকারি টিভি র‌্যাবের অভিযানে রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট তৈরি চক্রের হদিস আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার মামলা মুক্তিযোদ্ধাদের মর্যাদা ফিরিয়ে দিয়েছেন শেখ হাসিনা: নাসিম বাণিজ্যমন্ত্রীর হাতে ফুল দিয়ে আলোর পথে ১৩ ডাকাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা লন্ডনে কমনওয়েলথ মেলায় আবাসিকে গ্যাস সংযোগের পরিকল্পনা সরকারের নেই পাঁচ দিনের সফরে কেনিয়া গেলেন পরিকল্পনামন্ত্রী শাহ আমানতে চার্জার লাইটের ব্যাটারি থেকে সোনা জব্দ জ্বিনে ধরেছে আইরিনকে! বরফের সুনামি! সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় (ভিডিও) স্ত্রীর কাটা মাথা নিয়ে থানায় হাজির হলেন স্বামী! বুলবুলের পর এবার ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় `পবন`
১৫৭

৭৩ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো মা, জন্মালো জমজ কন্যা

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 


৭৩ বছর বয়সে জীবনে প্রথমবারের মতো মাতৃত্বের স্বাদ পেয়েছেন ভারতীয় এক নারী। একইসঙ্গে জমজ দুই কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন তিনি।
বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যের মাঙ্গাইয়াম্মা ইয়ারামাতি এ জমজ সন্তানের জন্ম দেন। তার স্বামী সীতারাম রাজারাওয়ের বয়স বর্তমানে ৮২ বছর।
জীবনে প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ পাওয়া ইয়ারামাতি জানান, সারা জীবন তিনি ও তার স্বামী সন্তান কামনা করেছেন। কিন্তু এর আগ পর্যন্ত তাদের কপালে সন্তান জোটেনি। 
‘সন্তানের জন্য আমরা অনেক চেষ্টা করেছি। অনেক ডাক্তার দেখিয়েছি। এটি আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়।’  
সন্তান না হওয়ায় সবসময় সমাজ ও গ্রামের লোকজন ইয়ারামাতিকে ‘অপয়া’ বলে গালমন্দ করতো। তাকে একঘরে করে রাখা হতো। এমনকি কোনো উৎসবেও তাকে ডাকা হতো না বলে জানান ইয়ারামাতি।
‘তারা আমাকে বন্ধ্যা বলে ডাকতো।’ বলেন মা হওয়ার স্বাদ পাওয়া এই নারী।
সদ্য বাবা হওয়া সীতারামও এ ঘটনায় দারুণ উচ্ছ্বসিত। প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এ ঘটনায় আমরা যারপরনাই খুশি। আইভিএফ চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসরণের দুই মাসের মধ্যেই ইয়ারামাতি গর্ভধারণ করেন।
 আইভিএফ বা ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন পদ্ধতিতে প্রথমে মানব দেহের বাইরে শুক্রাণু ও ডিম্বাণু নিষিক্ত করা হয়। পরে তা স্থাপন করা হয় জরায়ুতে। সাধারণত সন্তানহীন দম্পতিরা এ চিকিৎসাপদ্ধতির শরণাপন্ন হন।  
ওই নারীর চিকিৎসক উমা শঙ্কর জানান, সিজারের মাধ্যমে দুই শিশুর জন্ম হয়েছে। মা ও শিশুদ্বয় সুস্থ আছে। 
এর আগেও ২০১৬ সালে ৭০ বছর বয়সী আরেক ভারতীয় নারী ছেলে সন্তানের জন্ম দেন।

এই বিভাগের আরো খবর