সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   ভাদ্র ৩১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আ. লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা ১৮ সেপ্টেম্বর বরিশাল নগরীতে আসছে স্মার্ট এলইডি লাইটিং বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের জন্মদিন আজ আজ থেকে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি বিশ্ব ওজন দিবস আজ শিগগিরই বন্দর-ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে ত্রিপুরা-বাংলাদেশ দিল্লিতে শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক ৫ অক্টোবর সারাদেশে ৭৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ এ পি জে আব্দুল কালাম স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত শেখ হাসিনা টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ বরিশালকে যানজট মুক্ত রাখতে কাজ করছে ট্রাফিক সদস্যরা- ডিসি ট্রাফিক সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন : প্রধানমন্ত্রী বরিশালে কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম প্রয়াণ বার্ষিকী অনুষ্ঠিত রাজশাহীর পুলিশ একাডেমিতে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণপরিবহনে মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের সারদার পথে প্রধানমন্ত্রী হাজিদের দেশে ফেরার শেষ ফ্লাইট আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস আজ শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম আজ শুরু
১২০

৭৩ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো মা, জন্মালো জমজ কন্যা

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 


৭৩ বছর বয়সে জীবনে প্রথমবারের মতো মাতৃত্বের স্বাদ পেয়েছেন ভারতীয় এক নারী। একইসঙ্গে জমজ দুই কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন তিনি।
বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যের মাঙ্গাইয়াম্মা ইয়ারামাতি এ জমজ সন্তানের জন্ম দেন। তার স্বামী সীতারাম রাজারাওয়ের বয়স বর্তমানে ৮২ বছর।
জীবনে প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ পাওয়া ইয়ারামাতি জানান, সারা জীবন তিনি ও তার স্বামী সন্তান কামনা করেছেন। কিন্তু এর আগ পর্যন্ত তাদের কপালে সন্তান জোটেনি। 
‘সন্তানের জন্য আমরা অনেক চেষ্টা করেছি। অনেক ডাক্তার দেখিয়েছি। এটি আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়।’  
সন্তান না হওয়ায় সবসময় সমাজ ও গ্রামের লোকজন ইয়ারামাতিকে ‘অপয়া’ বলে গালমন্দ করতো। তাকে একঘরে করে রাখা হতো। এমনকি কোনো উৎসবেও তাকে ডাকা হতো না বলে জানান ইয়ারামাতি।
‘তারা আমাকে বন্ধ্যা বলে ডাকতো।’ বলেন মা হওয়ার স্বাদ পাওয়া এই নারী।
সদ্য বাবা হওয়া সীতারামও এ ঘটনায় দারুণ উচ্ছ্বসিত। প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এ ঘটনায় আমরা যারপরনাই খুশি। আইভিএফ চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসরণের দুই মাসের মধ্যেই ইয়ারামাতি গর্ভধারণ করেন।
 আইভিএফ বা ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন পদ্ধতিতে প্রথমে মানব দেহের বাইরে শুক্রাণু ও ডিম্বাণু নিষিক্ত করা হয়। পরে তা স্থাপন করা হয় জরায়ুতে। সাধারণত সন্তানহীন দম্পতিরা এ চিকিৎসাপদ্ধতির শরণাপন্ন হন।  
ওই নারীর চিকিৎসক উমা শঙ্কর জানান, সিজারের মাধ্যমে দুই শিশুর জন্ম হয়েছে। মা ও শিশুদ্বয় সুস্থ আছে। 
এর আগেও ২০১৬ সালে ৭০ বছর বয়সী আরেক ভারতীয় নারী ছেলে সন্তানের জন্ম দেন।

এই বিভাগের আরো খবর