বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দির তথ্য ডাটাবেজে থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দুই মাসে এডিপি বাস্তবায়নের হার বেড়েছে ৪.৪৮ শতাংশ উদ্বোধনের দিনেই পদ্মাসেতুতে ট্রেন চলবে: রেলমন্ত্রী ৮ হাজার ৯৬৮ কোটি ৮ লাখ টাকার প্রকল্প একনেকে অনুমোদন ভারতীয় কোস্টগার্ড ডিজির সঙ্গে রীভা গাঙ্গুলির বৈঠক বরিশালে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ইসির চুরি যাওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার, আটক ৩ আজ মহান শিক্ষা দিবস প্রধানমন্ত্রী ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন আজ রোহিঙ্গা ভোটার: ইসি কর্মচারীসহ আটক ৩ রিফাত-মিন্নির নতুন ভিডিও, বেরিয়ে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘বিজ্ঞান-প্রযুক্তির বিকাশ ছাড়া দেশ উন্নয়ন করা সম্ভব নয়’ রোহিঙ্গা ভোটার খতিয়ে দেখতে চট্টগ্রামে কবিতা খানম আগামী ১০মাসের রোডম্যাপ তৈরি ও তার বাস্তবায়ন করবো - জয় ও লেখক
১২

৫৯ বাণিজ্যিক ব্যাংকে স্বয়ংক্রিয় চালান পদ্ধতি চালু হচ্ছে

প্রকাশিত: ২২ আগস্ট ২০১৯  

রাজস্ব বাড়ানোর উদ্দেশে দেশের ৫৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংকে ‘স্বয়ংক্রিয় চালান’ পদ্ধতি চালু হচ্ছে। চালানের মাধ্যমে সরকারের কোষাগারে অর্থ জমা দেয়ার পরিমাণ বাড়াতে এ ব্যবস্থা চালু করা হচ্ছে বলে অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

‘ট্রেজারি চালান ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’-এর মাধ্যমে ট্রেজারি চালানের অর্থ সরকারের হিসাবে জমাকরণ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন শীঘ্রই জারি করবে অর্থ মন্ত্রণালয়। জানা গেছে, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে সোনালী ব্যাংক এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ন্যায় সমান্তরালে অন্যান্য সরকারী-বেসরকারী ব্যাংকেও সরকারী চালান লেনদেন কার্যকর করা হবে। প্রথমে সোনালী ব্যাংকসহ সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের ঢাকা মহানগরীর শাখাগুলোতে এ সিস্টেমটি চালু হবে, পরে পর্যায়ক্রমে সারাদেশে বাস্তবায়ন হবে।

সূত্র জানায়, বর্তমানের সিস্টেমে ভুয়া চালান ব্যবহারের নজিরও রয়েছে। কিন্তু নতুন সিস্টেম চালু হলে সরকারের বিপুল রাজস্ব ফাঁকি বন্ধ হবে। গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং সোনালী ব্যাংকে যাচাই করা ১ কোটি ৪৮ লাখ ১৪ হাজার চালানের বিপরীতে ৪ লাখ ৩৮ হাজার ৪৪৭ কোটি টাকা জমা হয়েছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংক এই সিস্টেম থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে দৈনিকভিত্তিতে সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান এ্যাকাউন্ট ডেবিটি করে ট্রেজারি চালান বাবদ জমাকৃত অর্থ সরকারী হিসাবে ক্রেডিট করবে এবং ক্রেডিট হিসাবে মহানিয়ন্ত্রকের কার্যালয় বরাবর পাঠাবে। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো সেবাপ্রত্যাশী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান হতে পাওয়া চালান রসিদ অনলাইন চালান ভেরিফিকেশন সাইটে যাচাই করে প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করবে। এ ক্ষেত্রে চালান যাচাইয়ের সেবা দেয়া সরকারী অফিসকে ব্যবহার চালান রসিদটি যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে হবে।
 

এই বিভাগের আরো খবর