সোমবার   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৪ ১৪২৬   ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
২০ বছর পর আজ ঢাকায় আসছেন নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদার প্যারোলে মুক্তির কোনো আবেদন পাইনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উহান ফেরত শিক্ষার্থীরা নজরদারিতেই থাকবেন : আইইডিসিআর রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার সহায়তা চাইলেন ড. মোমেন ইউএনও’দের মাধ্যমে রাজাকারের তালিকা করা হবে : মোজাম্মেল হক মানবপাচারে অভিযুক্ত এমপির বিষয়ে দুদককে তদন্তের আহ্বান কাদেরের হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন বিশ্বকাপজয়ী ৬ ক্রিকেটারকে নিয়ে বিসিবি একাদশ ঘোষণা মশা মারার পর্যাপ্ত ঔষধ মজুত আছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী রহমত আলীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট রহমত আলী আর নেই নিঃস্বার্থভাবে জনগণের কাজ করুন, নেতাকর্মীদের শেখ হাসিনা কে ভোট দিল কে দিল না তা বিবেচনা করে না আ. লীগ : প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ উন্নয়নে বিশ্বাসী: প্রধানমন্ত্রী চীন থেকে দেশে আসা সবাই সুস্থ : আইইডিসিআর বিএনপি এখন টেলিফোনে প্রেমালাপ শুরু করেছে : নানক মুজিববর্ষে দেশের প্রতিটি ঘর আলোকিত হবে: নাসিম দাখিল পরীক্ষায় নকল করায় ৬ ছাত্র বহিষ্কার খালেদার মুক্তি নিয়ে বিএনপি-ই দ্বিধান্বিত: তথ্যমন্ত্রী ৩৫ এলাকায় ফ্রি ওয়াই-ফাই পাচ্ছেন কক্সবাজারবাসী
১৪২

৫৫ কোটি বছরের আদি রাজ কাঁকড়া মিলল শঙ্খ নদীতে

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২০  

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় দেখা মিলল প্রায় ৫৫ কোটি বছরের আদি প্রাণী বিলুপ্তপ্রায় রাজ কাঁকড়ার। শনিবার চট্টগ্রামের আনোয়ারার শঙ্খ নদীর মোহনা বা বঙ্গোপসাগর উপকূলে রজিত জল দাসের জালে ধরা পড়ে দুটি রাজ কাঁকড়া।
অলৌকিক ওষধিগুণের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে এই প্রাণীর রক্ত ও অঙ্গপ্রত্যঙ্গ অত্যন্ত দামি বলে জানা গেছে। এই রাজ কাঁকড়া দুটি গিগাস প্রজাতির। স্থানীয় জেলেরা এটিকে দৈত্য কাঁকড়া নামে ডাকে।
রজিত জল দাস বলেন, প্রতিদিনের মতো নদীতে কাঁকড়া ধরতে গেলে কাঁকড়া দুইটি দেখতে পাই। অনেক কষ্ট করে ধরার পর বাড়িতে নিয়ে আসি। কাঁকড়াগুলো যে মহামূল্যবান তা আমি জানতাম না।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরির সমন্বয়ক ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া বলেন, রাজ কাঁকড়াটি দেখতে অশ্বখুরাকৃতির। পৃথিবীব্যাপী তিনটি গণের অধীনে এদের চারটি জীবিত প্রজাতি রয়েছে। প্রাগৈতিহাসিক এই প্রাণীকে ‘জীবন্ত জীবাশ্ম’ বলা হয়। যা প্রায় ৫৫০ মিলিয়ন বা ৫৫ কোটি বছর পূর্বে ট্রাইলোবাইট থেকে উৎপত্তি লাভ করে। এদের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত হওয়াতে অঙ্গসংস্থানিক পরিবর্তন ছাড়াই টিকে আছে পৃথিবীতে।

সাধারণত রাজ কাঁকড়ার জীবন চক্র ডিম, লার্ভা, জুভেনাইল এবং পূর্ণাঙ্গ দশা নিয়ে গঠিত। এরা ৯-১২ বছরে প্রাপ্তবয়স্ক হয়। পূর্ণ জোয়ারের সময় এরা প্রজনন করে। প্রজননের সময় প্রজাতিভেদে বসন্ত ও গ্রীষ্মের শুরুতে কর্দমাক্ত সৈকত বা নদী পাড়ে বিচরণ করে। রাজ কাঁকড়া ১২-১৯ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের সাগর উপকূল থেকে এরা এখন হারিয়ে যাচ্ছে। এমন কাঁকড়া সংরক্ষণে আধুনিক ল্যাবরেটরি  বাংলাদেশে না থাকা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ রাজ কাঁকড়া সংরক্ষণে সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া দরকার।

এই বিভাগের আরো খবর