বৃহস্পতিবার   ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৭ ১৪২৬   ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ জাপানের সঙ্গে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাগর তীরে উঁচু স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও না করলে দেশ আরো এগিয়ে যেত : তথ্যমন্ত্রী শহীদ দিবসে জঙ্গি হামলার কোনো সম্ভাবনা নেই : ডিএমপি কমিশনার দেশে ব্রয়লারসহ কোন পশু-পাখির মধ্যে করোনা পাওয়া যায়নি : আইইডিসিআর বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশ এখন অনুকরণীয়: শ ম রেজাউল ওআইসিকে শক্তিশালী করতে চাই: ড. মোমেন ধর্ষকদের ধরিয়ে দিন, কঠোর ব্যবস্থা নেবো: প্রধানমন্ত্রী টাকা না থাকলে এত উন্নয়ন কাজ করছি কীভাবে : প্রধানমন্ত্রী সব ব্যথা চেপে রেখে দেশের জন্য কাজ করছি : প্রধানমন্ত্রী ট্রেনে খোলা খাবার বিক্রি ও প্লাস্টিকের কাপ নিষিদ্ধ হচ্ছে চলতি বছরে জিপিএ-৪ কার্যকর হচ্ছে

১৯ হাজার ১০০ মেগাওয়াটের ১৬টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করবে সরকার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২০  

বিদ্যুৎ খাতের বৃহত্তর উন্নয়নে সরকার দেশে ১৯ হাজার ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন ১৬টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে। আজ সংবাদ সংস্থা বাসসের সঙ্গে আলাপকালে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, ‘১৯ হাজার ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন ১৬টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করার পরিকল্পনা চলছে।’

বর্তমানে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২২ হাজার ৭৮৭ মেগাওয়াটে পৌঁছেছে। বেসরকারী খাত ৮ হাজার ৭৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা সাশ্রয়ী মূল্যের সাথে টেকসই এবং নিরবচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য কাজ করছি।’

নসরুল হামিদ বলেন, আওয়ামী লীগ ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে সরকারের সময়োপযোগী, বাস্তব ও টেকসই পদক্ষেপের ফলে ১৪ হাজার ৯৮৬ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন ১২৪টি নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী নসরুল বলেন, ‘বর্তমানে দেশের প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষকে বিদ্যুতের আওতায় আনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী এবং গতিশীল নেতৃত্বের কারণে এটি সম্ভব হয়েছে।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মতে, সরকার ২০১৩ সাল থেকেই ভারত থেকে প্রতিদিন ১ হাজার ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করছে। ২০২১ এর মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া পর্যন্ত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়নো লক্ষ্যে সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদন, সম্প্রসারণ লাইন, বিতরণ লাইন এবং আরও অন্যান্য খাতের সক্ষমতা বৃদ্ধি করছে।

তিনি বলেন, বিশেষত পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায় সমূহ ও দরিদ্র জনগণসহ সকল শ্রেণীর জীবন-জীবিকা উন্নত করতে সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য একটি মাস্টার-প্ল্যান বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে, যাতে ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট, ২০৩০ সালের মধ্যে ৪০ হাজার মেগাওয়াট এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ে তুলতে ২০২১ সালের মধ্যে সকল নাগরিককে বিদ্যুৎ সুবিধা প্রাপ্তির আওতায় আনতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০০৯ সালে যখন দায়িত্ব গ্রহণ করে তার আগে মাত্র ২৭টি বিদ্যুৎকেন্দ্র ছিল, সেখানে ৪ হাজার ৯৪২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করার ক্ষমতা ছিলো।

 

এই বিভাগের আরো খবর