• রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১০ ১৪২৭

  • || ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ঢাকা শুধু বাসযোগ্য নয়, বিনোদন কেন্দ্রে পরিণত হবে: তাজুল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২২, শনাক্ত ৪৩৬ সবার আগে আমি ভ্যাকসিন নেব : অর্থমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৫৮৪ সার্জেন্টের ওপর হামলাকারী সেই যুবক গ্রেপ্তার পিকে হালদারের দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে দুদক প্রতিক্রিয়াশীলতা বিএনপির রাজনৈতিক চরিত্র: কাদের সরকারের সাফল্যে বিএনপি উদ্ভ্রান্ত হয়ে গেছে : তথ্যমন্ত্রী বাইডেন কমলাকে রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন ঢাকায় পৌঁছে গেছে করোনার টিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে শুভ সূচনা টাইগারদের পৌর নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে গেলেই কঠোর ব্যবস্থা: কাদের রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা দিতে ভাসানচরে নতুন থানা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রথমে ঢাকায় টিকা কর্মসূচি শুরু হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিদ্রোহী প্রার্থীদের সঙ্গে কোনো আপস নয়: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৬৯৭ কাউন্সিলর মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে: কাদের হাতিয়ায় বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও ভিডিও: ৫ জন গ্রেফতার ২৬ জানুয়ারির মধ্যে সেরামের টিকা আসবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

১৪০ কোটি টাকা নিয়ে লন্ডনে তারেকের আশ্রয়ে লতিফ সিদ্দিকীর পরিবার

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৯ মে ২০২০  

দুটি প্রতিষ্ঠানের নামে তিনটি ব্যাংক থেকে অন্তত ১৪০ কোটি টাকা নিয়ে ঋণখেলাপি হয়েছেন সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর স্ত্রী ও ছেলেমেয়েরা। এর আগে বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে দল থেকে বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ।

এদিকে অর্থ আদায়ে ব্যাংকগুলো করা মামলায় কোর্টে হাজির না হওয়ার তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। তবে এর মধ্যেই দেশ ছেড়ে পালিয়েছে লতিফ সিদ্দিকীর পুরো পরিবার।

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বিভিন্ন ধরনের প্রতারণামূলক কৌশল অবলম্বন করে বাংলাদেশ থেকে লন্ডনে পাড়ি জমিয়েছে লতিফ সিদ্দিকীর পরিবার। সেখানে তারেক রহমানের সঙ্গে সখ্য গড়ে তুলেছেন লতিফ সিদ্দিকী।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর থেকেই লতিফ সিদ্দিকীর সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেন বিএনপির লন্ডন পলাতক নেতা তারেক। বাংলাদেশ থেকে টাকা নিয়ে বর্তমানে লন্ডনে তারেক রহমানের সঙ্গে ব্যবসা করছেন সাবেক এই মন্ত্রী। এছাড়া সেখানে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দেয়ার বিনিময়ে বড় একটি অংশ দিতে হয়েছে বিএনপি নেতা তারেককে।

এর আগে দেশে প্রিন্টিং প্রেস ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসার জন্য মেজেস্টিকা হোল্ডিংস ও ধলেশ্বরী লিমিটেড কোম্পানি নামে দুটি প্রতিষ্ঠান গঠন করেন লতিফ সিদ্দিকীর পরিবারের সদস্যরা। আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর স্ত্রী লায়লা সিদ্দিকী প্রতিষ্ঠান দুটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং ছেলে অনিক সিদ্দিক ও মেয়ে রাইনা ফারজিন পরিচালক পদে আছেন। এবি ব্যাংকের কারওয়ান বাজার শাখা থেকে মেজেস্টিকার নামে ৪০ কোটি ৭২ লাখ এবং ধলেশ্বরীর নামে ১৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা ঋণখেলাপি রয়েছে। একই কোম্পানির নামে জনতা ব্যাংক থেকে ৫১ কোটি; পদ্মা ব্যাংক থেকে ধলেশ্বরী কোম্পানির নামে ৩০ কোটি টাকা নেওয়া হয়েছে।

গত বছরের জুনে জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী শীর্ষ ৩০০ খেলাপির যে তালিকা প্রকাশ করেন, তাতে মেজেস্টিকা রয়েছে ২১২ নম্বরে। ওই তালিকায় কোম্পানিটির নামে ঋণ দেখানো হয়েছে ৮৫ কোটি টাকা।

পবিত্র হজ, হযরত মুহাম্মদ (স.), তাবলিগ জামাতকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে দেশে ও দেশের বাইরে ব্যাপক নিন্দিত হন তিনি। এর জেরে মন্ত্রিসভার সদস্যপদ থেকে এবং আওয়ামী লীগের দলীয় পদ থেকে অপসারিত হন। এরপর সংসদ সদস্যের পদ থেকেও পদত্যাগে বাধ্য হন লতিফ সিদ্দিকী।

সরকারি জমি অবৈধভাবে বিক্রির দায়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গত বছরের জুনে তাকে কারাগারেও পাঠানো হয়। মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ার পরই তার ছেলেমেয়েরা ব্যবসা গুটিয়ে নিতে শুরু করেন। জানা গেছে, মেয়ে রাইনা ফারজিন বিদেশে লেখাপড়া করে সেখানেই বসবাস করছেন। ২০১৭ সাল থেকে ব্যাংকের খাতায় তারা ঋণখেলাপি। এদিকে লতিফ সিদ্দিকীকে দেশে ফেরাতে ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছে বাংলাদেশ সরকার।