সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৭ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
বিশ্বের সামনে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল : তোফায়েল আহমেদ দেশে মুক্তিযুদ্ধের পতাকাবাহী সরকার প্রতিষ্ঠিত: রাষ্ট্রপ‌তি সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন আইসিসির সিইও সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় এমপি মান্নানের প্রথম জানাজা সম্পন্ন সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা : ১০ জঙ্গির ফাঁসি এমপি মান্নানের মরদেহে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা আদালতে সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা মামলার ৪ আসামি চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে শক্তিশালী ভূমিকম্প শহীদ আসাদ দিবস আজ বৈষম্য বিলোপ আইনের খসড়া তৈরির কাজ চলছে: আইনমন্ত্রী মানবতার কল্যাণ কামনায় শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে লাখো মুসল্লি তুরাগতীরে পুরো পরীক্ষাই পেছাবে, নতুন সূচি আজ : শিক্ষামন্ত্রী ফাইভজির স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হবে শিগগির: অর্থমন্ত্রী ঢাকা সিটি ভোট পিছিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি করার সিদ্ধান্ত ইসির এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সোমবার মান্নানের জানাজা এমপি আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে গভীর শোক রাষ্ট্রপতির পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে এ মাসেই আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক
১১৪

পেঁয়াজ ছাড়াই মজাদার রান্না

হাঁসের মাংস

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

উপকরণ :

১. পরিমাণ মতো হাঁসের মাংস
২. আদা বাটা
৩. ধনের গুড়া
৪. গরম মসলা বাটা
৫. জিরা বাটা
৬. হলুদ গুড়া
৭. লবণ
৮. শুকনো মরিচ বাটা
৯. তেজপাতা
১০. দারুচিনি
১১. এলাচ
১২. চুইঝাল
১৩. নারকেলের দুধ

যেভাবে রান্না করবেন:

হাঁসের মাংস কাটার পর ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর সামান্য আগুনের তাপে কড়াইতে আদা বাটা, ধনের গুড়া, গরম মসলা বাটা, জিরা বাটা, হলুদ, লবণ, মরিচ বাটা পরিমাণ মতো তেলে ভাজতে হবে। ভাজার সময় মসলার মিশ্রণটি যেন পুড়ে না যায়, তার জন্য সামান্য পানি দিয়ে মসলাটা কসিয়ে নিতে হবে। মসলা কসানো হলে তার মধ্যে হাঁসের মাংস দিয়ে দেবেন।

এরপর চুলায় আগুনের তাপ বাড়িয়ে দিয়ে মাংসটা নাড়াচাড়া করতে হবে যাতে ভালো করে মসলার সঙ্গে মিশে যায়। এসময় মাংস থেকে যে পানি বের হবে সেটা শুকিয়ে নিতে হবে।

পানি শুকিয়ে যাওয়ার পর, নারকেলের দুধটা দিতে হবে। তারপর নারকেলের দুধটা দিয়ে মাংসটা কড়া করে কসিয়ে নিবেন। কসাতে কসাতে নারকেলের দুধটা শুকিয়ে তেল বেরিয়ে গেলে তখন ঝোলের জন্য পরিমাণ মতো পানি দিতে হবে।

ঝোলের পানিটা যখন ফুটে উঠবে তখন চুইঝাল বাটা, তেজপাত, দারুচিনি ও ৪/৫টা এলাচ থেতলে দিতে হবে। তারপর মাংসটা নরম হওয়া পর্যন্ত চুলায় আগুনের তাপ দিতে হবে।

মাংসটা নরম হয়ে গেলে, অল্প ঝোল বা মাংসের গা মাখা মাখা শুকনো করতে পারেন। তরকারি নামিয়ে শুকনা কড়াইতে তেল ছাড়া জিরা ভেজে গুড়া করে মাংসের তরকারির উপর ছড়িয়ে দিতে হবে। এভাবেই তৈরি হয়ে যাবে নারকেলের দুধের হাঁসের মাংস।

এই মাংশটা খেতে খুব মজাদার। স্বাদটা মুখে লেগেই থাকবে আর নারকেলের দুধে হাঁসের মাংস হজমের বা শরীরের কোনো ক্ষতি করবে না।