শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে সংযমের সঙ্গে চলার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর সাথে যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি দলের সাক্ষাত অবৈধ জুয়ার আড্ডা বা ক্যাসিনো চলতে দেওয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার পটুয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার বাদীকে পেটানো প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-৪ শাহজালালে বিমানের জরুরি অবতরণ শুক্রবার নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ফকিরাপুলের ক্যাসিনো থেকে আটক ১৪২ জনের জেল রাজধানীর তিনটি ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ রিয়াদের ফিফটিতে টাইগাররা ১৭৬ রানের লক্ষ্য দিলো জিম্বাবুয়েকে টস হেরে ব্যাটিং এ বাংলাদেশ রিফাত হত্যা : পলাতক ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রোহিঙ্গা সংকট : ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসছে চীন-মিয়ানমার-বাংলাদেশ আমাদের কাজই হচ্ছে জনগণকে সেবা দেয়া : প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন বাংলাদেশের পক্ষে: মোমেন আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী
৪৪

স্টেডিয়ামে লাগানো হলো তিন শতাধিক গাছ

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 


অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফুর্টে ওয়ের্দারসি ফুটবল স্টেডিয়ামে গেলে সবার চক্ষু চড়কগাছ হবেই। ২০০৮ সালে যারা ইউরোপিয়ান ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলেন, তারা এখন গেলে ভাববেন- ভুল করেই এসেছেন এ পথে।

৩২ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামজুড়ে শিল্পী ক্লাউস লিটম্যান আর্ট প্রজেক্টের অংশ হিসেবে রোপণ করেন ৩০০টির অধিক গাছ। এসব গাছের মধ্যে আছে- ফিল্ড ম্যাপল, ওক, হোয়াইট উইলো, হর্নবিম, আস্পেন প্রভৃতি। সারি সারি গাছ দেখে মনে হবে, এটা এক গভীর অরণ্য।

মূলতঃ অধিক হারে গাছ কাটা ও জলবায়ুর পরিবর্তন সংক্রান্ত বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতেই এই উদ্যোগ নেন ক্লাউস লিটম্যান। দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে এই স্টেডিয়াম।

স্টেডিয়ামে গাছবার্তা সংস্থাকে লিটম্যান জানিয়েছে, ম্যাক্স পেইন্টনারের ছবি ‘দ্য আনেনডিং অ্যাট্রাকশন অফ নেচার’-এ গাছে পূর্ণ স্টেডিয়াম দেখা গেছে, যেটি দেখতে ভিড় করেছিল হাজার হাজার মানুষ। ডিসটোপিয়ান চিন্তাধারায় আঁকা সেই ছবিকে বাস্তবে রূপ দিতে এ পরিকল্পনা নিয়েছিলাম। অবশেষে তা বাস্তবে রূপ পেয়েছে। প্রকল্পটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ফর ফরেস্ট’।

এদিকে ক্লাগেনফুর্ট কর্তৃপক্ষের প্রকল্পের কারণে আগামী ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত স্টেডিয়ামটিতে কোনো ফুটবল ম্যাচ হবে না। অবশ্য ২৭ অক্টোবর গাছগুলো স্টেডিয়াম থেকে সরিয়ে নেওয়া হবে।

অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফুর্ট ফুটবল দল সে সময় পর্যন্ত দ্বিতীয় বিভাগে খেলার জন্য অন্য মাঠ ব্যবহার করবে।

এই বিভাগের আরো খবর