বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
কমছে রাতের তাপমাত্রা, প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা এসআই আকরামসহ ১১ জন জেলহাজতে মানবতাবাদী নাট্যকার আর্থার মিলারের জন্ম মুখের কথায় চলে সাইদের ‘আশ্চর্য মোটরসাইকেল’ বরিশালে জাল-ইলিশসহ ২২জেলে আটক নীলনদের তীরে মিললো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ প্রাচীন কফিন পর্দা নামলো ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড এক্সপোর কুষ্টিয়ায় শুরু হলো তিনদিন ব্যাপী লালনমেলা বাংলাদেশই বিশ্বসেরা, প্রবৃদ্ধি হবে ৭.৮ শতাংশ হাজার কোটি টাকার চেকের কপি প্রতারক চক্রের বাসায়! ৯ কর্মীকে তলব, একজনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ ইন্দোনেশিয়া থেকে সরাসরি পণ্য আমদানির সুযোগ চায় বাংলাদেশ পার্বত্য জেলায় সন্ত্রাস-মাদক নির্মূল করা হবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাকেরগঞ্জে এনএসআই পরিচয়ে চাঁদাবাজি আটক-২ সাবেক সহকারী কর কমিশনারকে গ্রেপ্তার করল দুদক র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ পেলেই শাস্তি: আইনমন্ত্রী একাদশ সংসদের পঞ্চম অধিবেশন শুরু ৭ নভেম্বর যেখানে দুর্নীতি-টেন্ডারবাজি সেখানে অভিযান- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে বাকু যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
২৬৮

স্কুল থেকে পুরস্কার হিসেবে শিক্ষা সহায়ক উপকরণ দেয়ার নির্দেশ

প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০১৯  

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পুরস্কার হিসেবে বই অথবা শিক্ষা সহায়ক উপকরণ প্রদান করতে নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। পুরস্কার হিসেবে ক্রোকারিজ বা এ জাতীয় অন্যকোনো পণ্য বা বস্তু বিতরণ না করতেও নির্দেশনা দিয়েছে মাউশি।

বুধবার অধিদফতরের পরিচালক (মাধ্যমিক) অধ্যাপক ড. মো. আবদুল মান্নান স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশনা মাউশির ওয়েব সাইটে জারি করা হয়েছে।

বলা হয়েছে, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, বিদ্যালয়গুলোতে সহ-শিক্ষাক্রমিক কার্যক্রমের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রতিযোগীদের মধ্যে পুরস্কার হিসেবে ক্রোকারিজ সামগ্রী প্রদান করা হয়।

এ ধরনের পুরস্কার শিক্ষার্থীদের শিখন-শেখানো কার্যক্রমের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এ প্রেক্ষিতে গুণগত শিক্ষা অর্জনের লক্ষ্যে সব অনুষ্ঠানে প্রতিযোগী শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার হিসেবে বয়স উপযোগী মানসম্মত বই অথবা শিক্ষা সহায়ক উপকরণ প্রদান করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাউশির পরিচালক আবদুল মান্নান বলেন, ‘বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপহার হিসেবে ক্রোকারিজ ও শোপিচ দেয়া হচ্ছে। এসব উপহার পেয়ে ঘরে সাজিয়ে রাখা হয়, পুরস্কার হিসেবে অর্জন হলেও তা শিক্ষার জন্য ব্যবহার করা যায় না।’

তিনি বলেন, ‘একজন শিক্ষার্থী পুরস্কারটি যদি বই বা শিক্ষা উপকরণ হয়, তবে তা সে নিজের মতো করে ব্যবহার করতে পারে। বই পড়ে নতুন জ্ঞান আহরণ করা সম্ভব হবে। এ কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পুরস্কার হিসেবে ক্রোকারিজের পরিবর্তে বই বা শিক্ষা সহায়ক উপকরণ দেয়ার নিদের্শনা জারি করা হয়েছে।’

এই বিভাগের আরো খবর