বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান আজ বরিশালে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে যুদ্ধ জাহাজ সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী আগৈলঝাড়ায় প্রতিবন্ধি শিশু ধর্ষণ, এক ঘন্টার মধ্যে ধর্ষক গ্রেফতার সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বরিশালে পৃথক অভিযানে ২৫ মণ জাটকা জব্দ শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা দুদকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ সশস্ত্র বাহিনী নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন- প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আইভোরি কোস্টের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সশস্ত্র বাহিনী জাতির গর্বের প্রতীক : রাষ্ট্রপতি আজ বিশ্ব টেলিভিশন দিবস
১৫

স্কুলছাত্র আবরারের মৃত্যু : তদন্ত প্রতিবেদন জমা

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

স্কুলছাত্র নাইমুল আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন পুলিশের কাছে জমা দিয়েছে রেসিডেন্সিয়াল স্কুল কর্তৃপক্ষ। শনিবার (৯ নভেম্বর) এ তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়া হয়। তদন্ত রিপোটটি সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

নাইমুল আবরার ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির দিবা শাখার শিক্ষার্থী ছিল। ঢাকার আগারগাঁওয়ে পরিবারের সঙ্গেই থাকতো সে। গত ১ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে কলেজ ক্যাম্পাসে কিশোর আলোর একটি অনুষ্ঠান চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিহত হয় নাইমুল আবরার রাহাত।

এ ঘটনায় আয়োজকদের অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করছে শিক্ষার্থীরা। আবরারের সহপাঠীদের দাবি, ঘটনা চেপে রেখে আবরারকে কলেজের পাশের কোনো হাসপাতালে না নিয়ে মহাখালীর একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আবরারের বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার খবর লুকিয়ে অনুষ্ঠান চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে কিশোর আলো কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

২ নভেম্বর গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার ধন্যপুরে আবরারকে দাফন করা হয়। এদিনই আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ-বিক্ষোভের মধ্যে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি করে রেসিডেন্সিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। ৬ নভেম্বর আবরারের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেন আদালত।

সেদিনই আবরারকে অবহেলাজনিত হত্যার অভিযোগে প্রথম আলো সম্পাদকসহ কিশোর আলো অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে মামলা করেন আবরারের বাবা মজিবুর রহমান। এছাড়া ৩ নভেম্বর আবরার নিহতের ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলাও করেন আবরারের বাবা।

এই বিভাগের আরো খবর