• মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৫ ১৪২৭

  • || ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৬৯৭ কাউন্সিলর মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে: কাদের হাতিয়ায় বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও ভিডিও: ৫ জন গ্রেফতার ২৬ জানুয়ারির মধ্যে সেরামের টিকা আসবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পরিবার নিয়ে দেখা যায় এমন সিনেমা তৈরি করুন: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২১, শনাক্ত ৫৭৮ ২২ সালের মধ্যে ঢাকা-কক্সবাজার রেল চালু হবে: রেলমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১৬ জনের মৃত্যু ৬২ সহযোগীর মাধ্যমে অর্থপাচার, পিকে হালদারের হাজার কোটি টাকা ফ্রিজ কোনো প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হবে না : উশৈসিং বাংলাদেশে বিশ্বের সেরা মানের পাট উৎপাদিত হয়: পাটমন্ত্রী পিকে হালদারের বান্ধবী গ্রেফতার করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৭১৮ আওয়ামী লীগ সরকারে আছে বলেই দেশ স্বনির্ভর হয়ে উঠছে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২২, শনাক্ত ৮৪৯ ভাসানচর নিয়ে আন্তর্জাতিক এজেন্সির সাপোর্ট পাচ্ছি: মোমেন এইচএসসির ফল ২৮ জানুয়ারির মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর জা রওশন আরা ওয়াহেদ আর নেই সংগঠন গড়ার জন্য বঙ্গবন্ধু মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন: শেখ হাসিনা

সোহরাওয়ার্দী স্মরণে বঙ্গবন্ধু

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২০  

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক বাণীতে আশা প্রকাশ করে বলেন যে, ‘মহান নেতা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর গণতান্ত্রিক আদর্শ অনুসরণ করে, জাতি শোষণমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার যুদ্ধে ও সংগ্রামে এগিয়ে যাবে।’ ১৯৭২ সালের এই দিনে শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে প্রচারিত একটি বাণীতে বঙ্গবন্ধু তার নেতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, জাতি দেশ গড়ার সংগ্রামে এগিয়ে যাবে। বঙ্গবন্ধুর দেওয়া বাণীর পূর্ণ বিবরণীতে ছিল— ‘স্বাধীন বাংলার মুক্ত অঙ্গনে গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপন বিশেষ অর্থবহ। বাংলার মানুষের স্বার্থ সংরক্ষণে সোহরাওয়ার্দী ছিলেন হিমাচলের মতো অবিচল ও দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। স্বৈরাচারীর বিরুদ্ধে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম চালিয়ে গেছেন।

বাংলাদেশ অবজারভার, ৬ ডিসেম্বর ১৯৭২

তিনি অন্যায়, অসত্য ও অসুন্দরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন। তিনিও তার দেশের দেশবাসীর সঙ্গে অত্যাচারিত নিপীড়িত হয়েছেন। কিন্তু তিনি তার নির্দিষ্ট লক্ষ্য পথ থেকে কখনও বিচ্যুত হননি।  তারই অগ্নিমন্ত্রে দেশবাসী আজ মুক্ত। জাতীয় নেতার মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে আমি কামনা করি, তারই আদর্শের অনুসারী জাতি গণতন্ত্রের শপথে বলিয়ান হয়ে শোষণমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার সংগ্রামে এগিয়ে যাবে।  আমার বিশ্বাস, জাতির জয় হবে। জয় বাংলা।’

পাকিস্তান বিচার চাইতে পারে না

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী বলেন, ‘পাকিস্তানে আটক বাঙালিদের বিচার করার কোনও অধিকার পাকিস্তানের নেই। কারণ, এটা সব রকম নৈতিক ও মানবিক রীতিনীতির পরিপন্থী।’ এনা পরিবেশিত খবরে বলা হয় যে, পাকিস্তানে আটক বাঙালিদের বিচার করা হবে বলে প্রেসিডেন্ট ভুট্টো হুমকি দিয়েছেন। তার ওপর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে রাষ্ট্রপ্রধান এসব কথা বলেন। ৯ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরের শেষে দেশে ফেরার পথে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘বাঙালিরা কোনও অপরাধ করেনি।’ তিনি জানতে চান, এসব আটক নিরীহ বাঙালিদের বিচার করার হুমকি দিয়েছেন কেন? উল্লেখ্য যে, দখলদার আমলের ৯ মাসে বাংলাদেশে গণহত্যা, নারী নির্যাতন ও অগ্নিসংযোগের মতো জঘন্য অপরাধে অপরাধী পাক যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হলে, তার পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে পাকিস্তানে আটক বাঙালিদের বিচার করার হুমকি দেযন ভুট্টো।  বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, ‘এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের বিষয় যে, হত্যাকারীরাই আজ বিচারের কথা বলছে। যারা হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর অপরাধে অপরাধী, তারা কোন অভিযোগে নিরীহ বাঙালিদের বিচারের কথা বলছে?’

দৈনিক বাংলা,৬ ডিসেম্বর ১৯৭২বাংলাদেশের স্বীকৃতি চাইলো যুদ্ধবন্দিদের পরিবার

বাংলাদেশকে অবিলম্বে স্বীকৃতি দান ও পাকিস্তানে আটক বাঙালিদের ফিরিয়ে আনতে সরকারি প্রচেষ্টার সমর্থনে ভারতে আটক পাকিস্তানি যুদ্ধবন্দিদের হাজার হাজার বিক্ষুব্ধ পরিবার পিন্ডির রাজপথে শোভাযাত্রা বের করে। শিশু ও নারীসহ ১০ হাজার মিছিলকারী অবিলম্বে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিতে  স্লোগান প্রদান করে।

দৈনিক ইত্তেফাক, ৬ ডিসেম্বর ১৯৭২বাংলাদেশ-ভারত সাধারণ সীমান্ত শান্তি ও শুভেচ্ছা

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী ও ভারতের রাষ্ট্রপতি ভিভি গিরি ১৯৭২ সালের এই দিনে এই মর্মে আস্থা প্রকাশ করেন যে, বাংলাদেশ ও ভারতের সাধারণ সীমান্ত বরাবর শান্তি ও শুভেচ্ছার আন্তরিকতা টিকে থাকবে।

দৈনিক ইত্তেফাক, ৬ ডিসেম্বর ১৯৭২ -২ভারতের রাষ্ট্রপতির আস্থা, বাংলাদেশে যুদ্ধবিধ্বস্ত অর্থনীতির দেশ, শুভেচ্ছা ও পারস্পরিক সমঝোতার মনোভাব নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সহযোগিতা করে চলেছে ভারত। ভারতীয় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আলোচনাকালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান ভারত সরকার ও সেদেশের জনগণের প্রতি বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের শুভেচ্ছা বাণী পৌঁছে দেন।