• শনিবার   ০৬ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী মানুষকে সুরক্ষিত করতে প্রাণপণে চেষ্টা করছি: প্রধানমন্ত্রী করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ৩৫ জন, নতুন শনাক্ত ২৪২৩ হলিক্রস-নটরডেমসহ চার কলেজে ভর্তি বন্ধ গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত আরও ২৬৯৫ আজ থেকে চলবে আরও ৯ জোড়া ট্রেন হাসপাতাল থেকে রোগী ফেরানো শাস্তিযোগ্য অপরাধ: তথ্যমন্ত্রী যেকোনো প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করে এগিয়ে যেতে পারব: প্রধানমন্ত্রী সময় যত কঠিনই হোক দুর্নীতি ঘটলেই আইনি ব্যবস্থা: দুদক চেয়ারম্যান জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ ইউনিট স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর করোনা বিশ্ব বদলে দিলেও বিএনপিকে বদলাতে পারেনি: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত ২৯১১ সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশনা খাদ্য উৎপাদন আরও বাড়াতে সব ধরনের প্রচেষ্টা চলছে: কৃষিমন্ত্রী সারা দেশকে লাল, সবুজ ও হলুদ জোনে ভাগ করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৩৮১ জনের করোনা শনাক্ত পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী
১১২

সুন্দরবনসহ বাগেরহাটে উদ্ধার তৎপরতায় প্রস্তুত ২৩টি জাহাজ

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

সুপার সাইক্লোনে রূপ নিয়ে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আঘাত হানতে এগিয়ে আসায় সুন্দরবনসহ বাগেরহাটের উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার তৎপরতা চালাতে নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ও সুন্দরবন বিভাগের ২৩ টি জাহাজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে। 

বাগেরহাটে ৩০ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার ও পর্যাপ্ত বোতলজাত খাবার পানি প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার তৎপরতায় জন্য প্রস্তুত রয়েছে রেড ক্রিসেন্টসহ সরকারি-বেসকারি ১৭ হাজার ১৩০জন স্বেচ্ছাসেবক। জেলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে ৮৪টি মেডিকেল টিম। বাগেরহাটের ২৩৪াট ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রের ধারণ ক্ষমতা রয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার ৭৭৫জন মানুষের। জেলার সব আশ্রয় কেন্দ্র খুলে দেয়া হয়েছে। বাগেরহাটে বইতে থাকা ঝড়ে আহওয়া ও বৃষ্টির মধ্যে বিকাল পর্যন্ত এসব আশ্রয় কেন্দ্র ১৩ হাজার ৪৫১ জন নারী-পুরুষ ও শিশু আশ্রয় নিয়েছে। 

সুন্দরবনসহ বাগেরহাটের উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার তৎপরতা চালাতে নৌবাহিনীর ৪টি জাহাজসহ ৪শ' নৌসেনা, মোংলা বন্দরের জাহাজ ৩টি জাহাজ এমটি সুন্দরবন, এমটি শিপসা ও এমটি অগ্নিপ্রহরী প্রস্তুত রয়েছে। একই ভাবে কোস্ট গার্ডের সিজিএস কামরুজ্জামান, মুনসুর আলী, স্বাধীন বাংলা, সোনার বাংলা, অপারেজয় বাংলাসহ ১০টি জাহাজ ও সুন্দরবন বিভাগের ৬টি প্রস্তুত রাখা হয়েছে উদ্ধার তৎপরতার চালানোর জন্য।
বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ জানান, বাগেরহাটে ১০ নম্বার মহাবিপদ সংকেত জারির পর উপজেলা, পৌর কর্তৃপক্ষ, কোস্টগাড পুলিশ, আনসার, বন্দর কর্তৃপক্ষ, ফায়ার সার্ভিস, ইউনিয়র পরিষদ ও মসজিদ থেকে দুর্গতদের আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার ব্যাপারে দফায় দফায় সতর্কতামুলক মাইকিং করা করা হচ্ছে। স্বেচ্ছাসেবক বাড়িতে-বাড়িতে গিয়ে দুর্গতদের বাঁচাতে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে বলছেন। আশ্রয় কেন্দ্রের পাশাপাশি জেলার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠার দুর্গত মানুষের আশ্রয়ের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। আশা করছি ঝড় শুরু হবার আগেই সকল দুর্গত মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা যাবে। সে ভাবেই তৎপরতা চালানো হচ্ছে। 

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর