মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
হাসানাত আবদুল্লাহ নির্দেশে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জেনারেটর জনসভায় কথা বলার ভয় কাটিয়ে ওঠার উপায় নৌ স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে ভারত: রীভা গাঙ্গুলি নাসের আল-খেলাইফি: জেলে থেকে ফরাসি ফুটবলের ‘সম্রাট’ এজেন্টদের টাকা দিয়ে মালয়েশিয়া গেলে পুনঃনিয়োগের অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটাক্ষ করলে ক্ষমা করা হবে না: কাদের র‌্যাব-৮ এর অভিযানে ১১,৫০০ কেজি নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধার ট্রেন দুর্ঘটনা : তূর্ণা নিশীথার মাস্টার-সহকারী মাস্টার বরখাস্ত মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরিতে প্রতারণা : রাজস্ব কর্মকর্তার কারাদণ্ড ঘূর্ণিঝড় বুলবুল : কৃষি ফসলের ক্ষতি ২৬৩ কোটি টাকা চার দিনের সফরে আজ নেপাল গেলেন রাষ্ট্রপতি ট্রেন দুর্ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক শুধু কৃষিতে নির্ভর না করে শিল্প উৎপাদন বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী রেল দুর্ঘটনা: সংশ্লিষ্টদের সতর্ক হওয়ার নির্দেশ ৬ ঘণ্টা পর চালু হলো ঢাকা-চট্টগ্রাম রেল যোগাযোগ ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবারকে ১ লাখ,আহতদের ১০ হাজার দেয়ার ঘোষণা নুসরাত হত্যা:ফাঁসির আসামিদের পাঠানো হলো কুমিল্লা কারাগারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুর্ঘটনাস্থলে রেলমন্ত্রী দুই ট্রাভেল এজেন্সিতে র‌্যাবের অভিযান, ১০৫০ পাসপোর্ট জব্দ কসবায় ট্রেন সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
৪৮

সর্বোচ্চ জিপিএ ৪ এ বছর হচ্ছে না

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০১৯  

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফলাফলে সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ ৫-এর পরিবর্তে জিপিএ ৪ করার সিদ্ধান্ত এ বছর কার্যকর হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। 

মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার প্রস্তুতি সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ বছর সর্বোচ্চ জিপিএ ৪ শুরু করার করার কথা থাকলেও তা হচ্ছে না। এটি আগামী বছর থেকে শুরু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এনিয়ে কাজ করা হচ্ছে। আগামী বছর যে জেএসজি-জেডিসি পরীক্ষা হবে, সেটা থেকে ইন্ট্রোডিউস করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।

ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থীর হার নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, প্রতি বছর পাবলিক পরীক্ষায় নিয়মিত ও অনিয়মিত শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। কোনো বছর অনিয়মিত শিক্ষার্থীর সংখ্যা কম হলে সংখ্যাগত দিক থেকে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কম দেখায়। তবে, এখনো ঝরে পড়া শিক্ষার্থীর হার অনেক বেশি। এটি ক্রমান্বয়ে কমিয়ে আনা হচ্ছে। এ জন্য মাধ্যমিক পর্যায়ে ‘মিড ডে মিল্ক’ চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তক আনন্দপূর্ণ করে তোলা হচ্ছে। বৃত্তি ও উপবৃত্তির হার ও অর্থের পরিমাণও বাড়ানো হচ্ছে।

এ বছর আট হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী কমেছে, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এ বছর অনিয়মিত শিক্ষার্থীর সংখ্যা কম হওয়ায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। 

তবে, এর উত্তরে ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, গত বছরের নিয়মিত ও অনিয়মিত মোট পরীক্ষার্থীর পাস-ফেলের হিসাবটা আমাদের কাছে নেই। সেটি বের করলে এর কারণ জানা যাবে।

এই বিভাগের আরো খবর