রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
হলি আর্টিসান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর ‘সরকারি কাজে স্বচ্ছতার বিকল্প নেই’- স্পিকার প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো অভিযোগ নেই- গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী এফআর টাওয়ারের নকশা জালিয়াতি : বিএনপি নেতা ফারুকসহ ৩জন কারাগারে বরিশালে প্রাথমিক সমাপনীতে বসেছে ১ লাখ ৮৮ হাজার শিক্ষার্থী ছয় দিনের রিমান্ডে সম্রাট প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু: প্রস্তুত ২৯ লাখ শিক্ষার্থী আজ মজলুম জননেতা হামিদ খান ভাসানীর প্রয়াণ দিবস আমিরাতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু আজ আমার বাসায় সমস্ত রান্না হয়েছে পেঁয়াজ ছাড়া- প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি চলবে না : প্রধানমন্ত্রী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল সম্পাদক বাবু বরিশালে হিজড়া জনগোষ্ঠীদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে- শেখ হাসিনা পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে কাল-পরশু এলেই দাম কমবে- প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী দুবাই যাচ্ছেন আজ স্বেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন আজ মেসির জাদুতে ব্রাজিলকে হারাল আর্জেন্টিনা আয়কর দিলেন অর্থমন্ত্রী, রিটার্ন দাখিল প্রধানমন্ত্রীর
৩৬

শ্রমিক অধিকার নিয়ে বাংলাদেশের পদক্ষেপে সন্তুষ্ট ইইউ

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০১৯  

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বাংলাদেশে শ্রমিকের অধিকার রক্ষায় গৃহীত পদক্ষেপে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

বুধবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে ইইউ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান আইনমন্ত্রী।

আনিসুল হক বলেন, বাংলাদেশে শ্রমিকের অধিকার রক্ষায় গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। বিষয়টিকে কীভাবে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেয়া যায় সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘লেবার রাইটসের ব্যাপারে এর আগে যতগুলো কমিটমেন্ট করেছিলাম তার সবগুলো রেখেছি। আজকে বাস্তবতা স্বীকার করে তারা বললেন, আমরা এ বিষয়ে আরো কীভাবে অগ্রগতি করতে পারি সেজন্য ইইউ আলোচনা করতে চায়।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘ইইউ কী চায়, আমরা সেটা জানতে চেয়েছি। আমরা কী কী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি আর বাস্তবায়ন করেছি, সেটাও জানাব। এরপর কোথায় মতৈক্য সেটাও আমরা বুঝতে পারব। আর যেখানে মতপার্থক্য হবে, সেটা কেন হলো, সেটাও আমরা বিশ্লেষণ করতে পারব।’

মানবাধিকার নিয়ে কী কথা হয়েছে, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ইইউকে জানিয়েছি, হিউম্যান রাইটস নিয়ে আমরা অত্যন্ত সচেতন এবং সেটা রক্ষা করা সরকারের দায়িত্ব বলে আমরা মনে করি। সে দায়িত্ব সরকার পুরোপুরিভাবে পালন করছে। উদাহরণ হিসেবে বলেছি যে, নুসরাত হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে জনগণের দাবি ছিল এবং সরকারেরও অঙ্গীকার ছিল। এ মামলায় আইনের সব বাধ্যবাধকতা শেষ করে এনেছি। এর ফলে বিচারিক আদালত ২৪ অক্টোবর এ মামলার রায় দেবে।

রিশা ও আবরার হত্যার মামলা দ্রুত বিচারের কথাও তুলে ধরেন আনিসুল হক।

তিনি বলেন, ‘ইইউ প্রতিনিধিদল আমাকে বলেছে, বিশ্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। তারা মানবাধিকার এবং শ্রমিক অধিকারের বিষয়ে আমাদের সঙ্গে আলোচনা করতে চায়। এ বিষয়ে ইইউ বাংলাদেশের সঙ্গে কো-অপারেশন করতে প্রস্তুত।

এই বিভাগের আরো খবর