বুধবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ২ ১৪২৬   ১৮ মুহররম ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দির তথ্য ডাটাবেজে থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দুই মাসে এডিপি বাস্তবায়নের হার বেড়েছে ৪.৪৮ শতাংশ উদ্বোধনের দিনেই পদ্মাসেতুতে ট্রেন চলবে: রেলমন্ত্রী ৮ হাজার ৯৬৮ কোটি ৮ লাখ টাকার প্রকল্প একনেকে অনুমোদন ভারতীয় কোস্টগার্ড ডিজির সঙ্গে রীভা গাঙ্গুলির বৈঠক বরিশালে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ইসির চুরি যাওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার, আটক ৩ আজ মহান শিক্ষা দিবস প্রধানমন্ত্রী ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন আজ রোহিঙ্গা ভোটার: ইসি কর্মচারীসহ আটক ৩ রিফাত-মিন্নির নতুন ভিডিও, বেরিয়ে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘বিজ্ঞান-প্রযুক্তির বিকাশ ছাড়া দেশ উন্নয়ন করা সম্ভব নয়’ রোহিঙ্গা ভোটার খতিয়ে দেখতে চট্টগ্রামে কবিতা খানম আগামী ১০মাসের রোডম্যাপ তৈরি ও তার বাস্তবায়ন করবো - জয় ও লেখক
২১

শরীরে ট্যাটু আঁকায় ক্যানসারের ঝুঁকি

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৯  

 

শরীরে উল্কি আঁকা বা ট্যাটু করানোর বিষয়টি আজকাল বাংলাদেশেও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আর এ কারণেই রাজধানীতে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি ট্যাটু স্টুডিও বা পার্লার। তবে কিছু কিছু ট্যাটু ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় বলে জানালেন চিকিৎসকরা। 
 ট্যাটু এখন হালের ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখনকার তরুণরা অনেক বেশি আগ্রহী ট্যাটু করার প্রতি। একটা সময়ে খেজুর কাঁটা আর গাছের রস দিয়ে উল্কি করা হতো। সেই উল্কিই আজ ট্যাটুর আদলে এ দেশের তরুণ তরুণীদের কাছে ধরা দিয়েছে ফ্যাশন হিসেবে। আর তাই নিজেকে একটু আলাদা করতেই ট্যাটু করছেন অনেকে।
ব্যক্তিগতভাবে কিংবা স্টুডিওতে ট্যাটু আঁকার কাজ করেন শিল্পীরা। অস্থায়ী ট্যাটু প্রতি স্কয়ার ইঞ্চি ২০০ টাকা থেকে শুরু হলেও স্থায়ী ট্যাটু শুরু হয় দু হাজার টাকা থেকে। ডিজাইন ও আয়তনের ওপর নির্ভর করে টাকার পরিমাণ।
ট্যাটু দুই ধরনের। অস্থায়ী এয়ারব্রাশ ট্যাটু, অনেকটা তুলিতে কালি লাগিয়ে ছবি আঁকার মতো। আর স্থায়ী ট্যাটু করা হয় বিশেষ যন্ত্রের মাধ্যমে কালিসহ সুঁচ চামড়ার ভেতরে ঢুকিয়ে। তবে আজকাল ট্যাটু বিশেষ লেজারের মাধ্যমে তুলেও ফেলা যায়।
ট্যাটু শিল্পীরা বলেন, ১৮ বছরের নিচে কাউকে ট্যাটু করান না তারা। নারী-পুরুষ উভয়ের মধ্যেই ট্যাটু করার প্রবণতা বাড়ছে বলে জানান তারা।
যাদের বয়স কম, যাদের ডায়াবেটিস, অ্যালার্জি বা অন্য কোনো শারীরিক জটিলতা আছে তাদেরকে ট্যাটু না করার পরামর্শ দিলেন চিকিৎসকরা। সব ট্যাটু সব মানুষের জন্য সহনীয় নয় বলেও মন্তব্য করেন তারা।
অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার বলেন, ট্যাটুতে ইনফেকশন হতে পারে, সেখানে আলসার হতে পারে, কিছু কিছু ট্যাটুর রং শরীরে থেকে যায় এবং কিডনিতে, লিভারে সংকট তৈরি করতে পারে। 

ছয় সাত বছর আগে বাংলাদেশে টুকটাক ট্যাটু করার চল শুরু হলেও পেশাদারভাবে শুরু হয় ২০০৮ সালে।