• মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯০৭ পদ্মা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ মামলায় সাহেদ ৭ দিনের রিমান্ডে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪৮৭ দলীয় পরিচয় কোনো অপরাধীকে রক্ষা করতে পারেনি: কাদের লাইসেন্স নবায়ন না করলেই বেসরকারি হাসপাতাল বন্ধ দেশে করোনায় আরও ৩২ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১১ কাল অনলাইনে শুরু একাদশের ভর্তি, যেভাবে আবেদন করবেন সুযোগ আছে, করোনা সংকটেও বিনিয়োগ আনতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী আবের ফোন করোনায় আরও ৩৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৫৪ কামাল বেঁচে থাকলে সমাজকে অনেক কিছু দিতে পারতো: শেখ হাসিনা সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহার মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫০ মৃত্যু, শনাক্ত ১৯১৮ করোনায় আরও ৪৮ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৯৫ ঈদ-বন্যা ঘিরে করোনা সংক্রমণের হার বাড়তে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ট্রাফিক পুলিশ বক্সে বিস্ফোরণ, ‘নব্য জেএমবির সদস্য’ আটক করোনায় আরও ৩৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০০৯ ১২ কোটি টাকা আত্মসাত করে গ্রেফতার যমুনা ব্যাংকের ম্যানেজার থানায় বিস্ফোরণে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা নেই : পুলিশ ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ২৯৬০, মৃত্যু ৩৫
৫৭

লড়েছেন মোসাদ্দেক, জিতেছে ঢাকা

বরিশাল প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯  

 


টানা দুই ম্যাচ হেরে কোণঠাসা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের দল সিলেট থান্ডার। তাইতো ঢাকার প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে জয় পেতে মরিয়া ছিল তিনি। দলকে প্রথম জয় এনে দিতে  আপ্রাণ চেষ্টা চালান কাপ্তান মোসাদ্দেক। শেষ পর্যন্ত লড়েও যান একক ভাবে। তবুও শক্তিশালী ঢাকা প্লাটুন থেকে জয় ছিনিয়ে আনতে পারেনি সিলেট। থান্ডারদের ২৪ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেল মাশরাফির ঢাকা।

ঢাকার দেয়া ১৮৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই আন্দ্রে ফ্লেচারকে হারায় সিলেট। এরপর রনি ও চার্লস প্রতিরোধের চেষ্টা করেন। তবে দলীয় ৪৭ রানে রনি ফেরার পরেই আউট হন চার্লস। ৬১ রানেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় দিলেট।

একপ্রান্ত আগলে রেখে লড়াই চালিয়ে যান অধিনায়ক মোসাদ্দেক। তবে অপরপ্রান্তে সবাই ছিলেন আসা যাওয়ার মাঝে। নির্ধারিত ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রানে থেমে যায় সিলেটের ইনিংস। মোসাদ্দেক ৪৪ বলে ৬০ রানে অপরাজিত থাকেন। ঢাকার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন মাশরাফি ও হাসান মাহমুদ।

এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন সিলেট থান্ডার অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। উদ্দেশ্য ছিল ঢাকাকে অল্প রানে বেঁধে ফেলা। 

তবে সৈকতের উদ্দেশ্য সফল হতে দেননি ঢাকার দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও আনামুল হক বিজয়। উদ্বোধনী জুটিতে ১০ ওভারের আগেই তারা ৮৫ রান যোগ করেন স্কোরবোর্ডে। মোসাদ্দেকের বলে ডাউন দা উইকেটে মারতে এসে স্ট্যাম্পিং হন তামিম ইকবাল। এর আগে ২৮ বলে ৩১ রান করেন তিনি।

অপরপ্রান্তে বিজয় ছিলেন তুলনামূলক বেশি আক্রমণাত্মক। ৩৩ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশতক পুরণ করেন তিনি। এ ম্যাচে একাদশে আসা দেলোয়ার হোসেনের বলে সাজঘরে ফেরার আগে ৬২ রান করেন এ ওপেনার। এরপর বেশ দ্রুত দুই উইকেট হারায় ঢাকা। লরি ইভান্স ও জাকের আলী ফেরেন যথাক্রমে ২১ ও ২০ রানে। 

শেষদিকে পেরেরা ও রিয়াজের ক্যামিওতে ১৮২ রানে থামে ঢাকার ইনিংস। পেরেরা ১১ বলে ২২ ও রিয়াজ ৭ বলে ১৭ রানে অপরাজিত থাকেন। সিলেটের হয়ে একটি করে উইকেট নেন নাঈম, মোসাদ্দেক, এবাদত ও দেলোয়ার হোসেন।

খেলাধুলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর