বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

বরিশাল প্রতিবেদন
ব্রেকিং:
রাজধানীতে `ফইন্নী গ্রুপের` ৬ সদস্য আটক স্পিকারের সঙ্গে সার্বিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ ক্লাসিকোর ভেন্যু পাল্টানোর অনুরোধ লা লিগার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৮ কাউন্সিলর নজরদারিতে যেমন ছিল নবিজির জীবনের শেষ মুহূর্তটি দলের নাম ভাঙিয়ে অন্যায় করতে দেবেন না মেয়র সাদিক কমছে রাতের তাপমাত্রা, প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা এসআই আকরামসহ ১১ জন জেলহাজতে মানবতাবাদী নাট্যকার আর্থার মিলারের জন্ম মুখের কথায় চলে সাইদের ‘আশ্চর্য মোটরসাইকেল’ বরিশালে জাল-ইলিশসহ ২২জেলে আটক নীলনদের তীরে মিললো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ প্রাচীন কফিন পর্দা নামলো ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড এক্সপোর কুষ্টিয়ায় শুরু হলো তিনদিন ব্যাপী লালনমেলা বাংলাদেশই বিশ্বসেরা, প্রবৃদ্ধি হবে ৭.৮ শতাংশ হাজার কোটি টাকার চেকের কপি প্রতারক চক্রের বাসায়! ৯ কর্মীকে তলব, একজনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ ইন্দোনেশিয়া থেকে সরাসরি পণ্য আমদানির সুযোগ চায় বাংলাদেশ পার্বত্য জেলায় সন্ত্রাস-মাদক নির্মূল করা হবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
২০

রাজিয়া আলীমের পরিবারকে ‘দরদ’ দেখাতে গিয়ে রোষানলে বিএনপি নেতারা!

প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

সদ্য কারাবন্দী জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি রাজিয়া আলীমের পরিবারের খোঁজ-খবর নিতে গিয়ে তোপের মুখে পড়েছেন ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির নেতারা।

নেতৃবৃন্দের ভাব-লেশহীন আচরণ ও বিভক্ত রাজনীতির চরম সমালোচনা করে আগত বিএনপি নেতাদের বাক্যবাণে জর্জরিত করে তোলেন রাজিয়া আলীমের পরিবারের সদস্যরা। এছাড়া কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এসময় উপস্থিত না থাকায় উপস্থিত নেতাদের কটুকথাও শোনান রাজিয়ার পরিবারের সদস্যরা।

সূত্র বলছে, শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল, সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, বিএনপি চেয়ারপারসনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির সদস্য ইশরাক হোসেনসহ কয়েকজন নেতা রাজিয়া আলীমের পুরান ঢাকার নয়াবাজারের বাগডাসা লেনের বাসায় গেলে এই ধরণের বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন তারা। রাজিয়া আলীমের পরিবারের সদস্যদের তোপের মুখে পড়ে কিছুক্ষণ পরই ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বিএনপি নেতাদের সমালোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজিয়ার পরিবারের এক সদস্য বলেন, সমালোচনার মুখে পড়ে লজ্জা নিবারণ করতেই হাবিব উন নবী সোহেলের নেতৃত্বে বিএনপির নেতারা আমাদের বাড়িতে সমবেদনা জানাতে আসেন। দলের রাজনীতি করে আজকে রাজিয়া আলীম আটক হলেও আমাদের খোঁজখবর নেয়া ও তার মুক্তির ব্যাপারে তাদের কোন উদ্যোগ বা ইচ্ছা ছিলনা। বিএনপি নেতাদের এমন আচরণে আমরা অনেকটাই হতাশ। বিএনপির শীর্ষ নেতারা যে দলীয় কর্মী বা নেতাদের খোঁজ খবর রাখেননা, সেই গুঞ্জন তাদের আচরণে আরও স্পষ্ট হলো।

এদিকে রাজিয়া আলীমের পরিবারের খোঁজ নিতে মহিলা দলের নেত্রীদের অনুপস্থিতির বিষয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক এক নেত্রী বলেন, শুনলাম ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলসহ অন্যান্যরা রাজিয়া আপার পরিবারের সদস্যদের ‘দরদ’ দেখাতে গিয়েছিলেন। অথচ মহিলা দলের কোনো নেত্রী সেখানে যাননি। কোন্দল, মতবিরোধ থাকলেও বিপদের দিনে তো রাজিয়া আপার পরিবারের পাশে থাকা উচিত ছিলো। কিন্তু তাদের দেমাগ ও অহংকার এতটাই বেশি যে, রাজিয়া আপার বাসায় যাননি। বিষয়টি দুঃখজনক। শুনলাম বিএনপি নেতাদের অপমান করেছেন রাজিয়া আপার পরিবারের সদস্যরা। আসলে এটি তাদের পাওনা ছিলো।

এই বিভাগের আরো খবর